ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / হাজীগঞ্জে ১০ ভূমিদস্যুর বিরুদ্ধে সরকারি খাসভূমি দখলের অভিযোগ

হাজীগঞ্জে ১০ ভূমিদস্যুর বিরুদ্ধে সরকারি খাসভূমি দখলের অভিযোগ

হাজীগঞ্জ উপজেলার গন্ধর্ব্যপুর দক্ষিন ইউনিয়নের পাঁচৈই-হোটনী স্থানে ১০ ভূমিদস্যুর বিরুদ্ধে সরকারি খাসভূমি দখলের অভিযোগ পাওয়া যায়। গত এক যুগ ধরে একে একে স্থানীয় প্রভাবশালীরা খাল দখল করে বাড়ীঘর নির্মান করে আসলেও প্রশাসনের যেন কোন নজর নেই। এতে করে বর্তমান সময়ে বাকী অংশটুকু পাশ্ববর্তী জমির মালিকেরা খালটি অবৈধ ড্রেজার দ্বারা বালি দিয়ে দখল বানিজ্যের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এ নিয়ে স্থানীয় প্রশাসন থেকে শুরু করে সচেতনমহল নীরব ভূমিকা পালন করতে দেখা যায়।

জানা যায়, শত বছরের পুরনো পাঁচৈই ব্রীজের ঘোড়া থেকে হোটনী ব্রীজ পর্যন্ত খালটির কোন অস্থিত্ব খুজে পাওয়া যাচ্ছে না। গত এক যুগ পূর্বে এক জন দুই জন থেকে শুরু করে বর্তমানে ১০ ভূমিদস্যু মাটি ও বালু পেলে পুরো খাল দখল করে রেখেছে। এসব ভূমিদস্যু বেশীরভাগ রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে এবং স্থানীয় নেতাদের টাকা দিয়ে খাল দখল বানিজ্যের অভিযোগ পাওয়া যায়। আর এসব অনিয়মের কোন অভিযোগ পত্র ইউনিয়ন তহশিলদার অফিসে পাওয়া যায়নি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পাচৈই ব্রীজ থেকে হোটনী ব্রীজ পর্যন্ত এক কিলো মি. খালের পুরো অংশ রাস্তার সাথে মিশে গেছে। বর্তমানে এমন অবস্থা যে, কেউ বলতে পারবে না এখান দিয়ে এক সময় খাল ছিল যা দিয়ে নৌকাসহ সেচ প্রকল্পের পানি সরবরাহ হতো।

তদন্তকরে দেখা যায় এ খালটি দখল করে রেখেছে পাশ্ববর্তী পাঁচৈই, বাউরপাড়, হোটুনী, পালিশারার কিছু ভূমিদস্যু। এসব ভূমিদস্যুরা হলেন, পাঁচৈই গ্রামের বাবলু মিয়া, বিল্লাল হোসেন, মোস্তফা বাবুল, শাহজাহান মিয়া, আমির হোসেন, পালিশারার ভাই ভাই সমবায় সমিতি, হোটনী বুল্লা বাড়ির দেলোয়ার হোসেন, হারুন-অর রশিদ, এনাম হোসেন, নোয়াবাড়ীর আলম, দক্ষিন বাড়ীর আজাদসহ এ ১০ ভূমিদস্যু সরকারি খাসভূমি দখল করে বাড়ীঘর নির্মান করেছে।

এ বিষয়ে কয়েকজন ভূমিদস্যুর সাথে কথা বলে জানা যায়, এক জনের দেখায় আরেকজন এভাবে খালের অংশ দখল করে বাড়ীঘর নির্মান করেছে। প্রশাসন যদি মনে করে তাহলে দুই একজনকে তো আর উঠাতে পারবে না, উঠালে সবাইকে উচ্ছেদ করতে হবে।

গন্ধর্ব্যপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি গিয়াসউদ্দিন বাচ্চু বলেন, পূর্বের চেয়ারম্যানের আমলে ভূমিদস্যুরা সরকারি খাসভূমি দখল করে রেখেছে। আমার সময়ে বিষয়টি নজরে এসেছে কিন্তু প্রশাসনিক ভাবে সহযোগিতার অভাবে এবং স্থানীয় নেতাদের প্রভাবে বাধা সৃষ্টি করা সম্ভব হয়নি।

উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি শেখ সাধি বলেন, আমার দপ্তরে এ বিষয়ে পুরানো কোন অভিযোগ নেই তবে বিষয়টি যখন যেনেছি সহসায় তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Facebook Comments

Check Also

ফরিদগঞ্জে ভাতিজার হাতে চাচী ধর্ষণ,  ধর্ষণের ভিডিও পাঠিয়ে টাকা দাবী

এস.এম ইকবাল: চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার চরদু:খিয়া পশ্চিম ইউনিয়নের বিষকাঁটালী গ্রামে ভাতিজা কর্তৃক চাচীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে, সেই ধর্ষণের ভিডিও মোবাইলে ধারন করে সৌদিপ্রবাসী স্বামীর কাছে পাঠিয়ে অর্থ দাবী করার অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করেছে ভূক্তভোগী। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত রিয়াদ নামে এক যুবককে আটক করে আদালতে প্রেরণ করেছে। থানায় দায়েরকৃত মামলা অনুযায়ী জানাযায়, ওই ইউনিয়নের চৌকিদার বাড়ির সৌদি আরব প্রবাসী মোস্তফা কামালের স্ত্রী শারমিন আক্তারকে একই বাড়ির শফিকুর রহমানের প্রবাস ফেরত ছেলে রিয়াদ হোসেন ভয়ভীতি দেখিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষন করে, অবৈধ শারিরিক সর্ম্পকের একটি ভিডিও মুঠো ফোনে ধারণ করে রিয়াদ নিজেই। পরে সে নিজেই শারমিনের স্বামীর কাছে সেই ভিডিও চিত্র ও ছবি পাঠিয়ে অর্থ দাবী করে। পরে শারমিন বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় সোমবার লিখিত অভিযোগ করেন। পুলিশ অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করে অভিযুক্ত রিয়াদকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করে। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই কাজী মো: জাকারিয়া জানান, মামলার অন্য আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা ও আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি নেয়া হয়েছে। Facebook Comments

vv