ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / হাজীগঞ্জে হঠাৎ করে বেড়ে গেছে চুরি, রাত জেগে গ্রাম বাসীর পাহারা!
প্রতীকী ছবি

হাজীগঞ্জে হঠাৎ করে বেড়ে গেছে চুরি, রাত জেগে গ্রাম বাসীর পাহারা!

সাইফুল ইসলাম সিফাত : করোনা মহামারিতে গত প্রায় ৩ মাস পর হঠাৎ করে হাজীগঞ্জে বেড়ে গেছে চুরি। একদিকে করোনার দুর্যোগ অন্যদিকে চুরি বেড়ে যাওয়ায় মানুষের মাঝে দেখা দিয়েছে নতুন আতঙ্ক। তাই অর্ধ শতাধিক লোক দিয়ে রাত জেগে দিচ্ছে পাহারা। ইতিমধ্যে হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি থানার দুই সীমান্তবর্তী এলাকায় একাধিক চুরির ঘটনায় নড়েচরে বসে প্রশাসন।

জানাযায় উপজেলার সীমান্তবর্তী ১নং রাজারগাঁও, ৮ নং হাটিলা, ৯ ও ১০ নং গন্ধর্ব্যপুর ইউনিয়ন এবং পৌর এনায়েতপুরে সর্বশেষ গ্রামগুলোতে চুরি ডাকাতি বেশী হওয়ায় প্রশাসনের পূর্ব থেকে নজরে রয়েছে। এবার সেই আশঙ্কাই সত্যি হলো। গত এক সপ্তাহে উপজেলার ৯নং গন্ধর্ব্যপুর উত্তর ইউনিয়নের ৫টি গ্রামে এক রাতেই চুরি হওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে মানুষের ঘরের স্বর্নলংকার, মোবাইল, লাইটসহ দামি সরঞ্জামাদি চুরি করে নেয় চোরের দল।

স্থানীয়রা জানান গত এক সপ্তাহে ইউনিয়নের হরিপুর ভূইয়া বাড়ির সোহেলের ঘর থেকে দুটি মোবাইল, ১টি টচ লাইট, একই গ্রামের বেপারি বাড়ির আরিফের ঘর থেকে ১টি মোবাইল, জগন্নাথপুর পূর্ব বেপারী বাড়ির আবু সাঈদের বসতঘর থেকে ১টি মোবাইল, পূর্ব গন্ধব্যপুর বেপারী বাড়ির মোজাম্মেলের ঘর থেকে ২টি মোবাইল, ১টি ট্যাব, স্বর্ণ দেড় ভরি চুরি হয়। এছাড়া কাকৈরতলা কাজী বাড়ি, হরিপুর বেপারী, মালিগাও গ্রামের সর্দার বাড়ীসহ বেশ কিছু গ্রামে সিঁদ কেটে চুরি করতে এসে জনতার হাতে ধাওয়া খায় চোরের দল।

হাতেনাতে চোর ধরে পুলিশে দেয়া হয় গত শনিবার। ইতিমধ্যে হরিপুর ভূঁইয়া বাড়ীর সোহেল বাদী হয়ে কয়েকজন চোরের নাম উল্লেখ করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

এতে জানা যায় পাশ্ববর্তী শাহরাস্তির মাদক সম্রাট সিস্টেম খোকনের শ্যালক মন্টু ওরপে মাদক মন্টু, রুবেল, দুলাল ও মানিক হোসেন চুরির সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত। এদের সাথে জড়িত রয়েছে হাজীগঞ্জ থানার একটি চোর চক্র। ইতিমধ্যে এ চোরদের ধরতে প্রশাসন রাতের বেলায় অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে একাধিক বাড়িতে চুরি হয়েছে বলে জানা গেছে। করোনা সময়ে সম্প্রতি অনেকগুলো চুরি ও ছিনতাই হওয়ায় এলাকার মানুষ খুবই আতংকে দিন কাটাচ্ছেন।

এদিকে চোর ধরতে হরিপুর গ্রামে প্রায় অর্ধ শত যুবক লাঠি-সোঠা নিয়ে রাত জেগে বসিয়েছেন পাহারা। সিঁদেল চুরির পাশাপাশি গন্ধব্যপুরে বেড়েছে গরু চুরিও। ফলে কোরবানিকে কেন্দ্র করে গড়ে তোলা খামারি ও গৃহকর্মীরা রয়েছে চরম আতঙ্কে। স্থানীয় বাবুল, সোহেল, রাজু বলেন, আমাদের গ্রামে গত এক সপ্তাহে কয়েকটি চুরির ঘটনা ঘটে। আমরা চোর ধরতে প্রশাসনের সহযোগিতা চাই।

জানতে চাইলে চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাজীগঞ্জ-সার্কেল) আফজাল হোসেন বলেন, পুলিশ প্রশাসন বর্তমানে করোনা প্রতিরোধে ব্যস্ত। এই সুযোগে চুরি ছিনতাই শুরু করেছে একটি চক্র। একই এলাকায় একাধিক ঘটনা অত্যন্ত উদ্বেগজনক। আমরা অপরাধীদের ধরার চেষ্টা করছি। চুরি সহ যে কোন আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশ সতর্ক রয়েছে। গ্রামগুলোতে পুলিশের টহল বাড়ানো হয়েছে। আমি নিজেও রাত জেগে বিভিন্ন গ্রামে টহল দিচ্ছি। মানুষের জান-মাল রক্ষায় পুলিশ কাজ করছে।

এ বিষয়ে হাজীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আলমগীর হোসেন রনি বলেন, চুরি ডাকাতি রোধে প্রতি রাতে ৫ ভাগে পুলিশের টহল টিম কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের পুলিশের টহল জোরদার রয়েছে। তারপরও ২/১টি ঘটনা ঘটলেও খবর পাওয়ার সাথে সাথে আমরা অভিযান পরিচালনা করে থাকি। পুলিশের অভিযান টহল অব্যাহত আছে। সকলকে সচেতন থাকতে হবে। পুলিশকে সহযোগীতা করতে হবে।

Facebook Comments

Check Also

শাহরাস্তিতে শিশু আনিসার দাদীর সঙ্গে গিয়ে দাদার মাছের খামারে মৃত্যু

মোঃ মাসুদ রানা : চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে শিশু আনিসা আক্তার নামে ১৮ মাসের এক শিশু দাদীর …

vv