ব্রেকিং নিউজঃ
Home / প্রিয় চাঁদপুর / প্রিয় হাজীগঞ্জ / হাজীগঞ্জে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পুকুর থেকে আ’লীগ নেতার মাটি কেটে নেয়ার অভিযোগ

হাজীগঞ্জে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পুকুর থেকে আ’লীগ নেতার মাটি কেটে নেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : হাজীগঞ্জের বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়নে সরকারি ও বেসরকারিসহ দুইটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন ভূমির পুকুর থেকে মাটি কেটে নিজ বাড়ির ভরাট অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউনিয়ন এক আওয়ামী লীগের নেতার বিরুদ্ধে।

গত রোববার থেকে ওই ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রামচন্দ্রপুর কাসেমিয়া ছিদ্দিকিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদরাসার মালিকানাধীন পুকুর থেকে এই মাটি কাটার ঘটনা ঘটে।

তবে পারিবারিক সম্পত্তিতে মাটি কাটছেন এবং বিদ্যালয় ও মাদরাসার ভূমিদাতা পরিবার বলে সংবাদকর্মীদের কাছে দাবি করেন আওয়ামী লীগ নেতা ইয়াছিন আরাফাত। তিনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। বর্তমানে তিনি ইউনিয়ন উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির যুগ্ম আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন এবং আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী।

সরেজমিন পরিদর্শন করে জানা গেছে, বড়কুল পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের দক্ষিণ পাশে এবং রামচন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পূর্ব পাশে অবস্থিত পুকুর থেকে ইয়াছিন আরাফাতের পারিবারিক ভূমি ভরাটের জন্য গত রোববার থেকে প্রতিদিন ৮/১০ জন মাটি কাটছেন বলে কর্মরত শ্রমিকেরা জানান।

এই পুকুরে রামচন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩ শতাংশ ও রামচন্দ্রপুর কাসেমিয়া ছিদ্দিকিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদরাসার ২৩ শতাংশ ভূমি রয়েছে। তবে পুকুরটি ৩২ শতাংশ বলে জানান, রামচন্দ্রপুর কাসেমিয়া ছিদ্দিকিয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদরাসা কর্তৃপক্ষ। বাকি ৬ শতাংশের মালিকানান বিষয়ে বর্তমানে কাউকে দাবি করতে দেখা যায়নি বলেও তারা জানান।

মাদরাসা সূত্রে আরো জানা গেছে, গত ৩/৪ বছর আগে পুকুরটি মৌখিকভাবে ইজারা নিয়েছেন স্থানীয় মফিজুল ইসলাম মফু। এরপর বীরমুক্তিযোদ্ধা সুনিল চন্দ্র দাস এবং বর্তমানে ইয়াছিন আরাফাতের কাছে রয়েছে। তিনি ওই পুকুরে মাছ চাষ করেন। এর আয়ের টাকা স্থানীয় একটি মসজিদে ব্যয় করা হয় বলে মাদরাসা কর্তৃপক্ষ জানান।

বীরমুক্তিযোদ্ধা সুনিল চন্দ্র দাসের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, পুকুরটির ইজারাদার ইয়াছিন আরাফাত। আমি শুধু তত্ত্বাবধান করছি। গত কয়েকদিন আগে পুকুরের পাড় বাঁধবে বলে পুকুর থেকে পানি নিস্কাশনের জন্য ইয়াছিন আরাফাত আমাকে জানান। এরপর আমি সেঁঁচ দিয়ে পুকুরের পানি নিস্কাশন করি। কিন্তু পুকুরের পাড় বাধের পরিবর্তে তিনি যে নিজের পারিবারিক ভূমি ভরাট করছেন, তা আমি জানিনা।

এ বিষয়ে মাদরাসার অধ্যক্ষ মো. শফিকুর রহমান বলেন, মাটি কাটার বিষয়ে আমি কিছু জানিনা। এখন (বৃস্পতিবার দুপুরে) আমি আপনাদের মাধ্যমে জেনেছি। এরপর বিষয়টি সরেজমিন দেখে তিনি মাদরাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে জানিয়েছেন। মাদরাসা সম্পত্তি কিভাবে রেজুলেশন ছাড়া মৌখিক ইজারা দেওয়া হয় এ বিষয়ে তিনি সদূত্তর দিতে পারেন নি।

মাদরাসা পরিচালনা পর্ষদের সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান বলেন, পুকুরে মাদরাসার ২৩ ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩ শতাংশ ভূমি রয়েছে। এখানে বাকি সম্পত্তি (ভূমি) অন্যদের থাকলেও ইয়াছিন আরাফাতদের পারিবারিক কোন ভূমি নেই বলে তিনি জানান।

মাদরাসা পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. নুরুল আমিনের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি জানার পর তাৎখনিক আমি অধ্যক্ষকে মাটি কাটার বিষয়ে বাধা এবং বিষয়টি স্থানীয় চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা গাজী মনির হোসেনকে অবহিত করার জন্য বলেছি।

রামচন্দ্রপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. খোরশেদ আনোয়ার বলেন, পুকুরে আমাদের তিন শতাংশ রয়েছে। আমাদের অংশ কাউকে ইজারা দেইনি এবং মাটি কাটার বিষয়ে কেউ আমাদেরকে জানায়নি। বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি সাইফুল ইসলাম বকুল বলেন, পুকুরের যে অংশে মাটি কাটা হচ্ছে, ওই অংশ আমাদের না।

অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতা ইয়াছিন আরাফাত বলেন, পুকুরটিতে মাদরাসা ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভূমির পাশাপাশি আমাদের পারিবারিক সম্পত্তিও রয়েছে। আমরা আমাদের পারিবারিক সম্পত্তির অংশ থেকে মাটি কাটছি। তাই কাউকে জানাইনি। মাদরাসা, বিদ্যালয়, মসজিদসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে তারা পারিবারিকভাবে ভূমি দাতা বলে তিনি দাবী করেন।

Facebook Comments

Check Also

চাঁদপুরে একদিনে করোনামুক্ত ২১ জন : নতুন শনাক্ত এগারো

মাসুদ হোসেন : চাঁদপুরে করোনা ভাইরাসে নতুন করে আরো ১১ জন আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তিরা …

Shares
vv