ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / হাজীগঞ্জে আ’লীগের সংঘর্ষে আহত বীরমুক্তিযোদ্ধা মোহন সিরাজের মৃত্যু
বীরমুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম।

হাজীগঞ্জে আ’লীগের সংঘর্ষে আহত বীরমুক্তিযোদ্ধা মোহন সিরাজের মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার : হাজীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে গুরুতর আহত বীর মুক্তিযোদ্ধা সাবেক বিএলএফ বাহিনীল কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম মোহন (মোহন সিরাজ) মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহে ওয়া…..রাজেউন)। আজ বুধবার বাদ জোহর মরহুমের নিজ বাড়িতে জানাযা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হবে।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বীরমুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে এবং পাঁচ মেয়ে ও নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি পৌরসভাধীন ৩নং ওয়ার্ড খাটরা-বিলওয়াই গ্রামের হাজী বাড়ির বাসিন্দা।

গত ১৫ ডিসেম্বর কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে হাজীগঞ্জ পশ্চিম বাজারে উপজেলা আওয়ামী লীগ প্রতিবাদ মিছিল ও সমাবেশের আয়োজন করে। এ আয়োজনকে কেন্দ্র করে বিবাদমান আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয়পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হন।

সংর্ঘষকালীন সময়ে ইটের আঘাতে গুরুতর আহত হন বীরমুক্তিযোদ্ধা, সাবেক বিএলএফ কমান্ডার সিরাজুল ইসলাম ওরফে মোহন সিরাজ। ঘটনার পর তিনি স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন। এরপর তার শারিরিক অবস্থার অবনতি হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে গত ১৪ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর মঙ্গলবার দুপুরে মারা তিনি।

এ দিকে বীরমুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম মোহনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন, চাঁদপুর-৫ (হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি) আসনের সংসদ সদস্য মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম বীরউত্তম, পৌর মেয়র আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপন, উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী মাইনুদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, প্রেসক্লাব ও উপজেলা সাংবাদিক কল্যাণ সমিতির নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

Facebook Comments

Check Also

তেলে আগুন, স্বস্তি কাঁচা বাজারে!

এস.এম ইকবাল : বাঙালি মানেই খাদ্যরসিক। আর খাবারের প্রতি ভালোবাসা যেখানে, সেখানে বাজারে যাওয়ার প্রতি টান …

Shares
vv