ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / সরকারের উন্নয়নের সকল কিছুই দৃশ্যমান করতে হবে : খলিলুর রহমান
জেলায় বাস্তবায়নাধীন উন্নয়ন প্রকল্প সম্পর্কিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক প্রশাসন মোঃ খলিলুর রহমান।

সরকারের উন্নয়নের সকল কিছুই দৃশ্যমান করতে হবে : খলিলুর রহমান

সজীব খান : চাঁদপুর জেলায় বাস্তবায়নাধীন উন্নয়ন প্রকল্প সম্পর্কিত জেলার সকল বিভাগের সাথে মতবিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার সকাল ৯টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোঃ খলিলুর রহমান।

এ সময় তিনি বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চেষ্টা করছেন আমাদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে। মানুষকে একটু স্বস্তি দিতে। মানুষ যাতে একটু নিরাপদে সুন্দর ভাবে বাঁচতে পারে সেজন্য সরকার অনেক ভাবে চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। এ জন্য আমাদের যার যার অবস্থান থেকে সরকারকে সহযোগীতা করতে হবে। সরকারের উন্নয়নের সকল কিছুই দৃশ্যমান করতে হবে। যেখানে অনিয়ম ও দুনীতি রয়েছে সেখানকার তথ্য দিয়ে সরকারকে সহযোগীতা করতে হবে। দেশে আর যেন কোন জিকে শামীম সৃষ্টি হতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রেখেই সরকার দেশে পরিচালনা করছে।

সরকার দুনীতির বিরুদ্ধে কঠোর। আমাদের দেশের অর্থনীতিক অবস্থার দিন দিন পরিবর্তন হচ্ছে। সরকারের উন্নয়নের কর্মকান্ডগুলো সর্বস্তরের মানুষের কাছে তুলে ধরতে হবে।
তিনি বলেন দেশের মানুষের যাতে শিক্ষা স্বাস্থ্য, চিকিৎসাসহ সকল নাগরিক সঠিক ভাবে নিশ্চিত হয়, সেলক্ষ্যেই সরকার কাজ করছে। কৃষির উন্নয়নের জন্য সরকার ব্যাপক পদক্ষেন গ্রহন করেছে।

তিনি বলেন হাইওয়ে সড়কের পাশের দোকানগুলো উচ্ছেদ করতে হবে। চলতি বছর ডিসেম্বরের মধ্যে তা বাস্তবায়ন করতে হবে। উচ্ছেদের সময় কোন প্রকার বাঁধা আসলে সাথে সাথে প্রশাসনের সহযোগীতা নিতে হবে। নিরাপদ সড়কের জন্য হাইওয়ের সকল স্পীড ব্রেকারগুলো ভেঙ্গে পেলতে হবে। সড়কের পাশে গাছ লাগাতে হবে। মহা সড়কগুলোতে ভারী যানবাহনের লোড কমাতে হবে। গ্রামীণ ফিডার রোডগুলোর দিকে একটু বেশি নজর দিতে হবে। কোন মতে যাতে গ্রামীণ রাস্তাগুলোতে ৫ টনি যানবাহনগুলোর চলাচল করতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

এ সব বিষয়গুলো সম্পন্ন নিষিদ্ধ করতে হবে। সরকারি টাকা খরচ করে দেশের গ্রামীণ ফিডার রোডগুলো করা হচ্ছে, সেদিকে সরকারি কর্মকর্তা, কর্মচারীগন একটু বেশি খেয়াল রাখতে হবে। সড়কের পাশের অবৈধ স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করতে হবে। দেশে সঠিক ভাবে আইন প্রতিষ্ঠা করতে হলে সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীগন বেশি সচেতন হতে হবে।

তিনি বলেন প্রশাসনিক সেক্টরে জনবল সংকট থাকলে তাও সরকারকে লিখিত ভাবে জানাতে হবে। জনবলের সংকটের কোটাগুলো পূরনের জন্য সরকারের দৃষ্টি আনতে হবে। একটা ছেলে কিংবা মেয়ের সরকারি চাকরি হওয়া মানে, একটি পরিবারের ভাগ্য পরিবর্তন হওয়া। তাই কোন বিষয়ে খামখেয়ালী করা যাবেনা। সরকার মহিত উদ্যোগ নিয়ে দেশ পরিচালনা করছে। এ জন্য আমরা যারা দায়িত্বশীল পদে রয়েছি, তাদের সচেতন হওয়ার বিকল্প নেই।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ জামাল হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এস এম জাকারিয়া, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রট মোহাম্মদ আল মাহমুদ জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রট অলিদুজ্জামান. চাঁদপুর পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-২ জেনারেল ম্যানেজার মোহাম্মদ আবু তাহের, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিবার্হী প্রকৌশলী মোঃ আবু রায়হান, উপজেলা মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ এম এ গফুর, সড়কের নিবার্হী প্রকৌশলী জহিরুল ইসলাম, জেলা পরিষদের সচিব মিজানুর রহমান, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুল বাকী. জনস্বাস্থ্যের নিবার্হী প্রকৌশলী মাহমুদ কবির চৌধুরী, এলজিইডির নিবার্হী প্রকৌশলী শাহাদাত হোসেন, জেলা শিক্ষা অফিসার শফি উদ্দিন, জেলা সমাজ সেবা অফিসার রজত শুভ্র সরকার, উপজেলা সমাজ সেবা অফিসান মোঃ জামাল উদ্দিন, ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আবদুল মতিনসহ প্রশাসনের প্রতিটি বিভাগের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments

Check Also

চাঁদপুরে মৌসুমের সবচেয়ে বেশি পেঁয়াজের উৎপাদন হচ্ছে

প্রিয় চাঁদপুর : দেশের অন্যতম নদী বিধৌত কৃষি প্রধান অঞ্চল হওয়ায় এই অঞ্চলে ব্যাপক ফসল উৎপাদন …

vv