ব্রেকিং নিউজঃ
Home / ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর / সততা ও দক্ষতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন কচুয়া থানার ওসি মোঃ মহিউদ্দিন

সততা ও দক্ষতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন কচুয়া থানার ওসি মোঃ মহিউদ্দিন

মো: রাছেল, কচুয়া : সততা ও দক্ষতার সাথে কাজ করে যাওয়া এক অফিসার অল্প কিছু দিনেই কচুয়ার মানুষের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছেন! যে দেশের পুলিশ বাহিনীর কার্যক্রম যত উন্নত সে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থাও তত উন্নত। এছাড়া যে দেশের পুলিশ বাহিনী যত কর্মঠ সে দেশের জনগন তত শৃঙ্খলাবদ্ধ ।

এছাড়া চাঁদপুর জেলা গোয়েন্দা সংস্থার পুলিশ পরিদর্শক হিসেবে প্রায় ৩ বছর থাকাকালীন তিনি সুনামের সাথে কাজ করেন। চাঁদপুরের মানুষের আস্থা অর্জন করেন। জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদের দিক নির্দেশনায় তিনি কাজ করে যাচ্ছেন। বর্তমানে তিনি কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিসেবে কর্মরত আছেন।

দেশের নিয়ম বা অনিয়ম ঘটনাবলী সম্পর্কে সত্যকে উৎঘাটন করে, সৎ ও সাহসিকতার সাথে নিরপেক্ষ ভাবে আইন এবং সমাজের কাছে তুলে ধরে যাচ্ছেন চাঁদপুরের কচুয়া থানার এই ওসি। ছোট্ট জীবনে পুলিশ বাহিনী নিয়ে অনেক লেখা পড়েছি, তবে পুলিশ বাহিনীর মধ্যে অনেক সৎ নিষ্ঠাবান কর্মকর্তা রয়েছে যারা জীবন বাঁজি রেখে সততার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি এমনই এক সাফল্যের বরপুত্র।

জানা গেছে, করোনা ভাইরাসের শুরু থেকেই তা মোকাবেলায় মাঠ পর্যায়ে তাঁর অংশ গ্রহন ছিল চোখে পরার মতো। সাহসী পুলিশ অফিসার মোহাম্মদ মহিউদ্দিন এর যোগদানের পর থেকে তার চৌকস অফিসারদের নিয়ে রাত দিন কঠোর পরিশ্রম করে,নিজের সাহসী পদক্ষেপে কচুয়ার অপরাধ দমন সহ নানান সামাজিক কাজে অংশগ্রহণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। সকল প্রকার অপরাধ দমনে যার রয়েছে কঠোর মনিটরিং কচুয়ার মানুষ আশাবাদী অল্প কিছুদিনেই কচুয়া থানাকে একটি মডেল থানা হিসাবে রূপান্তর করতে সক্ষম হবে।

আরও পড়ুন… চাঁদপুরের দুই কৃতি সন্তান মাসুদ আলম ও একেএম জহিরুল পুলিশ সুপার হলেন

ছোট বড় সকল অপরাধ দমন সহ বিভিন্ন সময়ে রাজনৈতিক ইস্যুতে আইনশৃঙ্খলা বিঘ্নকারীকে গ্রেপ্তারে বিশেষ অবদান রেখেছেন। যার ফলে স্থানীয় থানা ও পুলিশ বিভাগের প্রতি কচুয়ার জনগনের স্বস্তি ও বিশ্বাসের সৃষ্টি হয়েছে। সত্যিই তিনি বারবার প্রমান করতে চেয়েছেন,পুলিশ জনগণের বন্ধু, জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দেওয়ার দায়িত্ব বিশেষত্ব পুলিশের।

ওসি মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন- পুলিশ মানে আতংকিত কোন বাহিনীর নাম নয়, দেশ ও মানুষের সেবা করার জন্য পুলিশে চাকুরি নিয়েছি। কচুয়াকে মাদক সহ সকল অপরাধের জিরো টলারেন্স নীতিতে এগিয়ে নিবো। থানায় সাধারণ ডায়রী, অভিযোগ দায়ের, পুলিশ ক্লিয়ারয়েন্স, মামলার রুজু সংক্রান্ত আর্থিক লেনদেন যেন না হয় সে বিষয়ে কঠোর মনিটরিং অব্যাহত থাকবে। খুব শিগ্রই এই থানার সকল কর্মকর্তাদের সহযোগীতায় এ ধারনা বদলে দিতে সক্ষম হব ইনশাআল্লাহ্।

তিনি আরো বলেন- আমৃত্যু দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে তিনি তার সুস্থতার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন। একজন মানুষ হিসেবে মানুষের পাশে থাকা আমাদের সকলের কর্তব্য। বাংলাদেশ পুলিশের সকল সদস্য এখন মানবিকতার সাথে কাজ করছে। মানুষ বিপদে পরলে আগে স্মরণ করে পুলিশের কথা তাই পুলিশকেও মানবিক বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে।

উল্লেখ্য যে, ওসি মহিউদ্দিন কুমিল্লা জেলার হোমনা উপজেলার ৩নং দুলালপুর ইউনিয়নের বাঁচারি কান্দির থানা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: মোশারেফ হোসেনের পুত্র। তাঁর মাতা শাহারা বেগম গৃহিনী। ওসি মহিউদ্দিন ঢাকা সরকারি তিতুমির কলেজ থেকে ২০০৭ সালে বি.কম.অনার্স ও এম.কম হিসাব বিজ্ঞান থেকে মাস্টার্স শেষ করেন।

Facebook Comments

Check Also

রোজাদার ও সুবিধা বঞ্চিতদের মাঝে হাজীগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের এক বেলা আহার প্রধান

নিজস্ব প্রতিবেদক : হাজীগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ জালাল রুবেল এর উদ্যোগে রোজাদার, …

Shares
vv