ব্রেকিং নিউজঃ
Home / অর্থনীতি / শাহরাস্তির গ্রামীণজনপদ ভোলদিঘী ইসলামী ব্যাংক এজেন্ট শাখার দৃষ্টান্ত স্থাপন

শাহরাস্তির গ্রামীণজনপদ ভোলদিঘী ইসলামী ব্যাংক এজেন্ট শাখার দৃষ্টান্ত স্থাপন

নিজস্ব প্রতিনিধি : চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার মেহার দক্ষিণ ইউনিয়নের ভোলদীঘি বাজারে স্থাপিত ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড়ের এজেন্ট ব্যাংক এই জনপদে এক অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে। গত ২০২০ সালের ৩০ জুলাই এই এজেন্ট ব্যাংক শাখাটি কার্যক্রম শুরু করে।
মাত্র ৮ মাস বয়সী ব্যাংকের এই এজেন্ট ব্যাংক শাখাটি ব্যাংকিং সেবা প্রদান করে এই গ্রামীণ জনপদে অনন্য নজির স্থাপন করেছে। এই শাখার উদ্যোক্তা স্থানীয় ভোলদীঘি গ্রামের প্রবাস ফেরৎ মোঃ তারেক আহমেদের ঐকান্তিক চেষ্টায় আজ এখানে হিসাবধারীর সংখ্যা ৬ শতের অধিক। প্রতিদিনই নতুন নতুন গ্রাহক এখানে বিভিন্ন মেয়াদী স্থায়ী ও সঞ্চয়ী হিসাব খুলতে ভিড় করতে দেখা যায়। ইতিমধ্যে এজেন্ট ব্যাংকের এই শাখাটি লাভের মুখ দেখতে শুরু করেছে।
ভোলদীঘি বাজারে ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড়ের এই এজেন্ট ব্যাংকের শাখাটি স্থাপন করেছেন স্থানীয় ভোলদীঘি গ্রামের বাসিন্দা মোঃ তারেক আহমেদ।
এক প্রতিক্রিয়ায় তিনি জানান, দীর্ঘ ২৪ বছর মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদী আরব কাটিয়েছি। বিদেশে দেখে এসেছি কিভাবে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ সাধারণ মানুষ ও গ্রাহককে ব্যাংকিং সেবা দিয়ে থাকে। আমি বিদেশে দেখা ব্যাংকিং সেবার সেই অভিজ্ঞতা এখানে কাজে লাগিয়েছি। অত্র অঞ্চলের বাসিন্দাগণ এখানে এসে ব্যাংকিং করলে বুঝতে পারবেন এখানে কত আন্তরিকতার সাথে ও ভালো গ্রাহক সেবা দিয়ে থাকে।
তিনি আরও বলেন, আমি বিদেশে যাওয়ার পূর্বে স্থানীয় একটি স্বনামধন্য উচ্চ বিদ্যালয়ে গনিত বিষয়ের শিক্ষক হিসাবে ৪ বছর ও অত্র এলাকার একটি ঐতিহ্যবাহি মাদ্রাসায় সাড়ে তিন বছরেরও বেশি সময় শিক্ষকতা করেছি। দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং বিদেশে কাজ করার অভিজ্ঞতাকে এখানে কাজে লাগিয়ে এই এজেন্ট ব্যাংকিং এর সেবা গ্রামীণজনপদের মানুষকে দেয়ার চেষ্টা করছি। এছাড়া এই ব্যাংকের রয়েছে জনপ্রিয় বেশ কতগুলো প্রডাক্ট বা গ্রাহক সেবা। যা গ্রাহকের চাহিদা মোতাবেক ব্যাংকিং সেবায় এই গ্রামীণ জনপদের মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিচ্ছে।
তন্মধ্যে উল্লেখযোগ্য সেবাসমূহ হচ্ছে :- (১) সকল ধরণের ব্যাংক হিসাব খোলা, (২) নগদ টাকা জমা ও উত্তোলন, (৩) প্রবাসিদের রেমিট্যান্স এর টাকা প্রদান, (৪) বিদুৎ, গ্যাস ও টেলিফোন বিল গ্রহন, (৫) ইসলামী ব্যাংকের যেকোন অ্যাকাউন্টে টাকা প্রেরণ বা স্থানান্তর, (৬) অন্য ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে টাকা প্রেরণ বা স্থানান্তর, (৭) ডেবিট ও খিদমাহ্ কার্ডের আবেদন গ্রহন, (৮) ক্ষুদ্র ও কৃষি বিনিয়োগের আবেদন গ্রহন, (৯) সরকার প্রদত্ত পেনশন ভাতা ও সামাজিক সুবিধা প্রদান (১০) মোহর সঞ্চয়ী হিসাবে টাকা জমা রাখা, (১১) মুদারাবা ওয়াকফ্ ক্যাশ জমা রাখা ইত্যাদি।
বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড দেশের সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকিং জগতে এক অনন্য নাম। ব্যাংকিং জগতে উক্ত ব্যাংকটি জাতীয় পর্যায়ে বহুবার রাষ্ট্রীয় প্রধান ব্যাংক হিসাবে স্বীকৃতি লাভ করেছে। এই ব্যাংকের আর্থিক বুনিয়াদ অনেক মজবুত এবং শক্তিশালী। তাছাড়া ইসলামী শরিয়া মোতাবেক এই ব্যাংকটি পরিচালিত হয় বলে মুসলিম জনগণের নিকট অনেক সমাদৃত। এই ব্যাংকে সেবা নিতে এসে কেউ প্রতারিত হয়না।
এখানে ৫জন লোক বর্তমানে কাজ করে, যারা  সকলে ব্যাংকিং কাজ করার ক্ষেত্রে গ্রাহকের সেবা ও পছন্দকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে। আমাদের জাতীয় অর্থনীতিতে এই ব্যাংকের অবদান আজ বলার অপেক্ষা রাখে না। ব্যাংকটি আমাদের দেশের সকল বাণিজ্যিক ব্যাংক গুলির মধ্যে অর্থনৈতিকভাবে অনেক মজবুত ও শক্তিশালী ভিত্তির উপরে দাঁড়িয়ে আছে।
Facebook Comments

Check Also

কচুয়া সড়কে বোনের নাতির ঈদের কাপড় দিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন দাদি

মোঃ রাছেল, কচুয়া : বোনের নাতির জন্যে ঈদ উপহার দিয়ে বাড়ি অন্য বোনের বাড়িতে যেতে রওনা …

Shares
vv