ব্রেকিং নিউজঃ
Home / আঞ্চলিক খবর / শাহরাস্তিরতে দিবালোকে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে ব্যবসায়ী ও স্থানীয়দের মানব বন্ধন

শাহরাস্তিরতে দিবালোকে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে ব্যবসায়ী ও স্থানীয়দের মানব বন্ধন

স্বপন কর্মকার মিঠুন : শাহরাস্তি উপজেলার সূচীপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নের লোটরা বাজারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কতিপয় সন্ত্রাসীরা অর্তকীত হামলা চালিয়ে ব্যাপক লুটপাট ও বেদম মারধর করেন।

সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে গত শুক্রবার ১৬ অক্টোবর বিকেল সাড়ে ৪ টায় ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী ও স্থানীয় এলাকাবাসীর উদ্যোগে এক মানব বন্ধন করছেন। মানব বন্ধনে বক্তব্য রাখেন, বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা কমিটির সভাপতি ছাগীর আহম্মদ, সাধারণ সম্পাদক কাজী ওমর ফারুক, সহ-সভাপতি সহিদুল ইসলাম টিটু, উপদেষ্ঠা মো. খোরশেদ আলম, কোষাধ্যক্ষ নুরে আলম, সদস্য সাহিদুল ইসলাম সিজান ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ মানব বন্ধনে অংশ গ্রহন করেন।

ক্ষতিগ্রস্থরা জানান, রাগৈ গ্রামের মৃত আনোয়ার উল্যাহর ছেলে ফরিদ উল্যাহ মম (৩৬) বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ও আওয়ামীলীগ সরকারের বিরুদ্ধে কু-রুচি ও অশ্লীল ভাষা লেখে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করে। এই ঘটনা নিয়ে কয়েক দিন যাবৎ সরকার দলের স্থানীয় সমর্থকদের মাঝে প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

গত ১০ অক্টোবর সকাল আনুমানিক সাড়ে ১১টায় ফরিদ উল্যাহ তার বাহীনি নিয়ে বাজারে উঠে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মহড়া দেওয়ার সময় তাদের রোশানলে পড়ে ছাত্রলীগ সমর্থক লোটরা গ্রামের মৃত দেলোয়ার হোসেনের পুত্র তারেক হোসেন(২৩)। তাকে উত্তম-মধ্যম দিয়ে ফরিদ উল্যাহ তার বাহীনি নিয়ে পুর্ব পরিকল্পিত ভাবে বাজারের মেসার্স ভূঁইয়া টাইলস, এম.এস টেলিকম সেন্টার, ফেমাস মেডিসিন সেন্টার ও মেসার্স কবির ট্রেডাসে অর্তকীত হামলা চালিয়ে দোকান-পাট ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে। এই ব্যাপারে তারেক হোসেন বাদি হয়ে ১৫ জনকে বিবাদি করে শাহরাস্তি থানায় মামলা দায়ের করেন। যার নং-১১, তারিখ ১০ অক্টোবর/২০২০ইং। মামলায় ফরিদ উল্যাহ কে সহ ১৫ জন ও অজ্ঞাত আরো ১০/১৫ জনকে বিবাদি করে মামলা করা হয়। পুলিশ ফরিদ উল্যাহকে আটক করে জেল হাজতে পাঠান।

স্থানীয়রা জানান, ২০০১ সালে এই এলাকায় মাইকেল গ্রুফ নামে একটি সঙ্গবদ্ধ সন্ত্রাসী বাহিনী ছিলো। তৎকালিন সময়ে ওই বাহিনীর তান্ডবে এলাকার লোকজন অতিষ্ঠ হয়ে পড়ে ছিলো। আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর মাইকেল বাহিনীর সদস্যরা এলাকা ছেড়ে গাঁ ডাকা দেয়। ফরিদ উল্যাহ মাইকেল বাহিনীর সদস্য। দীর্ঘ বছর তার এলাকা ছাড়া থাকায় স্থানীয় লোকজন নিরাপত্ত ভাবে বসবাস করে আসলেও বর্তমানে তারা এক এক করে বাসা দিয়ে উঠায় এলাকায় লোকজনের মাঝে আবার আতংক দেখা দিয়েছে। তাদের আইনের আওতায় নিয়ে দৃষ্টন্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা নিতে ভুক্তভোগী মহল দাবি জানান।

Facebook Comments

Check Also

শাহমাহমুদপুরে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত

মাসুদ হোসেন : “মুজিব বর্ষের অঙ্গিকার, পুলিশ হবে জনতার” এ স্লোগানকে সামনে রেখে চাঁদপুর সদর …

vv