ব্রেকিং নিউজঃ
Home / অপরাধ / শাহরাস্তিতে ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে অফিস সহকারী মফিজুলের ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ

শাহরাস্তিতে ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীকে অফিস সহকারী মফিজুলের ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগ

নোমান হোসেন আখন্দ : শাহরাস্তির রায়শ্রী দক্ষিণ ইউনিয়নের পরানপুর ফাজিল মাদ্রাসার অফিস সহকারী কতৃক ৫ম শ্রেনীর শিক্ষার্থীকে ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগের ঘটনা ধামা চাপার চেষ্টা চলছে। মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের বৈঠকে ওই অফিস সহকারীকে শোকজ করা হয়েছে।

মাদ্রাসা কতৃপক্ষ ও শিক্ষার্থীর পরিবার সূত্রে জানায়, পরানপুর মাদ্রাসা সংলগ্ন প্যাচানী বাড়ীর কন্যা ও পরানপুর ফাজিল মাদ্রাসার এবতেদায়ী শাখার ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী (১১) কে মাদ্রাসা ছুটির পর মাদ্রাসা ক্যাম্পাসে প্রাইভেট পড়ান পরানপুর ফাজিল মাদ্রাসার অফিস সহকারী ও উল্ল্যাশ্বর পাটোয়ারী বাড়ীর বকস আলীর পুত্র মফিজুল ইসলাম।

প্রতিদিনের ন্যায় ওই শিক্ষার্থী প্রাইভেট পড়তে আসলে গত ১৬ নভেম্বর দুপুর ৩ টায় অফিস সহকারী মফিজুল ইসলাম ওই শিক্ষার্থীর পরিধেয় ড্রেস খুলে তাকে ধর্ষন চেষ্টা চালায়। যৌন হয়রানির একপর্যায়ে ওই শিক্ষার্থী বই খাতা রেখে মাদ্রাসার পার্শ্ববর্তী তার বাড়ীতে গিয়ে আশ্রয় নেয়। পরদিন ওই শিক্ষার্থী মাদ্রাসায় আসলে অফিস সহকারী মফিজুল তাকে বেদম মারধর করে।

বিষয়টি ওই শিক্ষার্থী তার পরিবারকে জানালে, তার পরিবার মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত সুপার মাও: সফিকুর রহমানকে বিষয়টি অবহিত করেন। এ বিষয়ে গত ২২ নভেম্বর শুক্রবার সকালে পরানপুর ফাজিল মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত সুপার মাও: সফিকুর রহমান ও মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সহসভাপতি মোহাম্মদ উল্ল্যাহ নেতৃত্বে মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের এক বেঠক বসে।

বৈঠকে অফিস সহকারী মফিজুল ইসলামকে উক্ত বিষয়ে ৫ কর্মদিবসের মধ্যে জবাব প্রদানের জন্য শোকজ করা হয়। বৈঠকে মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সদস্য আবুল বাশার, আবদুল কাদের,শাহাজান মোল্লা,মনজুর হোসেন, আ: ছাত্তার সহ এলাকার গন্যমান্য লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত সুপার মাও. সফিকুর রহমান জানান, বিষয়টি জানার পরই আমি অভিবাবক সদস্যদের নিয়ে বৈঠক বসি। বৈঠকে মাদ্রাসায় প্রাইভেট পড়ানো বন্ধ করা হয়েছে। অফিস সহকারী মফিজকে শোকজ করা হয়েছে।

এবিষয়ে মাদ্রাসা পরিচালনা পর্ষদের সহসভাপতি মোহাম্মদ উল্ল্যাহ জানান, ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে ধর্ষনের বিষয়ে কিছু বলেননি। বেদম মারধরের বিষয়টি লিখিতভাবে জানিয়েছেন। আমরা অফিস সহকারী মফিজুলকে শোকজ ও ভবিষ্যতে এহেন কর্মকান্ড যেন না হয়, ভবিষ্যতের জন্য মুছলেকা রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে অফিস সহকারী মফিজুল ইসলাম জানান, এলাকার কয়েকজন লোক বিষয়টি চাউর করেছেন। প্রকৃত ঘটনা হলো আমি তাকে মারধর করেছি, এছাড়া কিছু নয়।

Facebook Comments

Check Also

ফরিদগঞ্জে দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থীর উপর বখাটের হামলা

এস.এম ইকবাল : ফরিদগঞ্জে মাদ্রাসায় যাওয়ার পথে দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থী আমেনা আক্তার (১৬) উপরে হামলা করেছে …

vv