ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / রাতে চাঁদপুরের মসজিদে মসজিদে হঠাৎ ‘করোনা মুক্তি’র আজান, জনমনে আতংক

রাতে চাঁদপুরের মসজিদে মসজিদে হঠাৎ ‘করোনা মুক্তি’র আজান, জনমনে আতংক

সাইফুল ইসলাম সিফাত ও মো. মজিবুর রহমান রনি : শহর আর গ্রাম সব জায়গায় রাত ১০টায় আজানের ধ্বনিতে কম্পিত হলো আরেকবার। রাতে এশার নামাজে আজান মসজিদে দেওয়া হলেও রাতের এ আজান দেওয়া হল করোনা মহামারি থেকে ‘মুক্তি’র আশায়। এ আজান মসজিদে সীমাবদ্ধ ছিল না। ঘরের আঙ্গিনায় অনেক পরিবারের কর্তাব্যক্তিরাও আজান দিয়েছেন। শহর ও গ্রামের অনেক জায়গাতেই আজান দেওয়া হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ, ফরিদগঞ্জ, মতলব উত্তর ও দক্ষিণ, নারায়ণপুর, কচুয়া, শাহরাস্তি, চাঁদপুর সদর সহ বিভিন্ন এলাকায় রাত ১০টায় এ ধরনের আজান শোনা গেছে বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের মুখপাত্র ও আলীগঞ্জ হযরত মাদ্দাহ্ খাঁ (রঃ) জামে মসজিদের খতিব মুফতি ফজলুল কাদের বাগদাদী বলেন, ‘আযান দেওয়া ভালো। বলা মসিবত থেকে রক্ষার জন্য ইসলামে আজান দেওয়ার বিধান রয়েছে।’

বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের এই নেতা বলেন, ‘আজকে রাতে সব জায়গায় আজান হয়েছে আমিও শুনেছি। সেটি বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের সিদ্ধান্ত ছিল না। এটি ফেসবুকের মাধ্যমে ছড়ানো হয়েছে।’

জানা গেছে, পুরো আয়োজনটিই ফেসবুকনির্ভর। অজ্ঞাত উৎস থেকে ফেসবুকের মাধ্যমে এটি ছড়িয়েছে দেশজুড়ে। তবে অন্য একটি সূত্র জানায়, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের কয়েকজন নেতা রাত ১০টায় একযোগে আজানের প্রস্তাব করলে ফেসবুকের মাধ্যমে এটি অনেকের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। সেখান থেকে এই আজান। তবে এতে কোনো ইসলামী দলের সক্রিয় অংশগ্রহণ ছিল না।

তবে ইসলামী ছাত্রসেনার পক্ষে কেন্দ্রীয় গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মো মাছুমুর রশিদ কাদেরী কর্মসূচিটি তাদের নিজেদের দাবি করে বলেন, ‘এটি মূলত আামাদের দলীয় কর্মসূচি। পরে তা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সবাই সমর্থন করেছেন। করোনা থেকে মুক্তি পেতে রাত দশটায় একযোগে আযান কর্মসূচি পালন করেন।’

Facebook Comments

Check Also

চাঁদপুরে মাছ পাচারকালে ২০ ড্রাম জাটকাসহ দু’টি পিকআপ জব্দ

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুরে প্রতিদিন দিনে-রাতে ট্রাক ও পিকআপবোঝাই করে জাটকা ইলিশ ঢাকায় পাচার হচ্ছে …

vv