ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / রাজারগাঁও ব্রীজ নির্মাণের ৩ মাসের মাথায় দু’ পাশ্বের মাটি ধ্বসে যানবাহন চলাচলে সীমাহীন দূর্ভোগ

রাজারগাঁও ব্রীজ নির্মাণের ৩ মাসের মাথায় দু’ পাশ্বের মাটি ধ্বসে যানবাহন চলাচলে সীমাহীন দূর্ভোগ

হাজীগঞ্জের রাজারগাঁও বাজার ব্রীজ নির্মাণের তিন মাসের মাথায় দুই পাশের মাটি ধ্বসে যাওয়ায় যানবাহন চলাচলে সীমাহীন দূর্ভোগে পড়তে দেখা যায়।

গত ১২ জুলাই সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার ১নং রাজারগাঁও ইউনিয়নের ঘোড়াদারী রাস্তার রুহিতার বিলের খালের উপর নির্মিত রাজারগাঁও বাজার সংগ্লন্ন ব্রীজটি ২০১৬ সালের শেষ দিকে নির্মান কাজ শুরু করে। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের কর্মসূচীর আওতায় ৪০ ফুট দৈঘ্যে যার চুড়ান্ত ব্যয় ধরা হয়েছে ৩২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা। অল্প সময়ের মধ্যে কাজ সম্পাদন করে দুই পাশে পরিমানমত মাটি না ফেলে ব্রীজটি উদ্ধোধনের ব্যবস্থা করেন।

হাজীগঞ্জ-শাহরাস্তি নির্বাচনী এলাকার সংসদ সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী এবং নৌ পরিবহন মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম বীর উত্তম গত ২০ মে ২০১৭ ইং তারিখে উক্ত ব্রীজটি উদ্ধোধন করেন।

এর আগে স্থানীয় এলাকাবাসী তৎকালীন সময়ে কাজের তড়িগড়ি দেখে ঠিকাদারকে প্রশ্ন করেন এবং স্থানীয় চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবহিত করেন। কিন্তু তাতেও কোনরুপ কাজ না হয়ে বরং ঠিকাদারের লোকজন ইচ্ছামত কাজ দ্রত সম্পন্ন করেন। এতে কাজের মান অনেকাংশে খারাপ হয়েছে । এমনকি ব্রীজের দুই পাশ্বে পরিমানমত মাটি না দিয়ে স্বল্প মাটিতে কাজ শেষ করেন। গত কয়েকদিনের অতি বর্ষণে ব্রীজটির দুই পাশের মাটি ধ্বশে পড়ে যায়।

বর্তমানে এহেন অবস্থা যে দুই পাশের সিএনজি,অটোরিক্সাসহ ভারী যানবাহন চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়ে। এতে দেখা যায় যানবাহনের যাত্রী সাধারণ হেঁটে ব্রীজ পারাপার হতে হচ্ছে। এমনকি স্কুল ও কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ সাধারণ মানুষ সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ অমানবিক বেহাল অবস্থা দেখার যেন কেউ নেই।

দুর্ভোগে কবলে নিপতিত হওয়া যাত্রীরা বলেন,“ কেমন ব্রীজ নির্মান করলো ৩ মাসের মধ্যে এমন বেহাল দশা হয়ে পড়েছে। আমরা চাই কর্তৃপক্ষ অতি দ্রত বিষয়টি নজর দিবেন ও যাত্রীসাধারনের স্বাভাবিক চলাচলের ব্যবস্থা গ্রহনে অনতিবিলম্বে ব্যবস্থা গ্রহণ করার আশু দৃষ্টি কামনা করেন।

এ বিষয়ে রাজারগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল হাদি মিয়া বলেন, বিষয়টি ইতিপূর্বেও কয়েকবার ঠিকাদারকে বলেছি।সে বিষয়টি কোনরূপ কর্ণপাত করেনি যে কারনে উপজেলা প্রকল্প বাস্তাবায়ন কর্মকর্তাকেও অবহিত করেছি।

Facebook Comments

Check Also

কচুয়ায় ৭ বছরের শিশুকে ললিপপের লোভ দেখিয়ে ধর্ষণ, থানায় মামলা

মোঃ রাছেল : কচুয়ায় বাড়ির সম্পর্কীয় দাদা কর্তৃক দ্বিতীয় শ্রেনীতে পড়ুয়া শিক্ষার্থী (মি) (৭) ধর্ষণের …

vv