ব্রেকিং নিউজঃ
Home / মতামত / রত্ন গর্ভার চোখে জল…

রত্ন গর্ভার চোখে জল…

মনিরুজ্জামান বাবলু : বারান্দার জানালার গ্রিল ধরে দাঁড়িয়ে ৯৫ বছর বয়সী রত্নগর্ভা। বাকরুদ্ধ হয়ে দুচোখ দিয়ে দেখছেন দশম ছেলে সাইফুজ্জামান মিন্টুর বড় মেয়ে আশরা আনম খানের মরদেহ। তার আগে চির বিদায় জানিয়েছেন ছেলের সাইফুজ্জামান মিন্টু ও তার ছোট মেয়ে তাসনিম জামান খানের মরদেহ।

একসাথে তিনজনের মরদেহ বিদায় জানিয়ে রত্নগর্ভা মায়ের চোখের জলরাশিতে হিমহিম বরফের মত স্তব্ধ হয়ে গেছে।

রত্নগর্ভা মায়ের নামটি জানতে চাইনি। তার নামটি দেশের বিভিন্ন দপ্তরের গর্বিত সন্তানদের পাশে লেখা রয়েছে। শহর থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে অজ পাড়াগাঁয়ে বেড়ে ওঠা সন্তানরা আজ আলোকিত। ছয় ছেলে ও পাঁচ সন্তানের জননী এই রত্নগর্ভা।

রত্নগর্ভা বড় ছেলে আবুল হাশেম খান অগ্রণী ব্যাংকের ম্যানেজার ছিলেন। সম্প্রতি তিনি অবসরে সময় কাটাচ্ছেন। দ্বিতীয় ছেলে কর্ণেল ডা. নজরুল ইসলাম, তৃতীয় ছেলে নর্থ ইউনিভার্সিটির প্রভাসক ড. মোস্তফা কামাল খান, চতুর্থ ছেলে মিজানুর রহমান কুমিল্লা জেলা সমবায় কর্মকর্তা ও ছোট ছেলে ঝন্টু জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক। আর সাইফুজ্জামান মিন্টু ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের চট্টগ্রাম কার্যালয়ের যুগ্ম পরিচালক। অনেক আগেই তারা বাবাকে হারিয়েছে।

ছয় ছেলের মধ্যে পঞ্চম ছেলে সাইফুজ্জামান মিন্টু। নিভে গেল মিন্টুর আলোকিত জীবন। তছনছ হয়ে গেছে সাজানো সংসার। সড়ক দুর্ঘটনার পরিসংখ্যানে যুক্ত হলো সাইফুজ্জামান মিন্টু ও তার দুই কন্যা সন্তানের নাম। একটি সড়ক দুর্ঘটনা বেড়ানোর আনন্দকে বিষাদে ভরিয়ে দিল। গোটা পরিবারকে করে ফেলল তছনছ।

রত্নগর্ভা এই মা, প্রতিষ্ঠিত সন্তানদের বাসায় ও গ্রামের বাড়িতে কাটছে দিনগুলো। গর্ভের সন্তান ও দুই নাতনি কে হারিয়ে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন। ছেলের বউ কণিকা আক্তার (৪০) ও দশ বছর বয়সী নাতি মন্টু এখনো আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন।

সপরিবারে সাইফুজ্জামান মিন্টু শনিবার সকালে নিজেই ড্রাইভিং করে বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তা সাইফুজ্জামান মিন্টু পরিবার নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। সীতাকুন্ডের ফৌজদারহাট বাইপাস মোড়ে তাদের বহন করা প্রাইভেটকারটি ধীরগতিতে আসলে ঢাকা থেকে আসা একটি লরি মোড়ঘুরতে গিয়ে সজোরে চাপা দেয়। এতে করে ঘটনাস্থলেই মারা যান সাইফুজ্জামানের দুই মেয়ে। আহত অবস্থায় সাইফুজ্জামানকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। যে স্থানটিতে সড়ক দুর্ঘটনা হয়েছে- সেখানের পরিসংখ্যানুযায়ী, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক চট্টগ্রাম সিটি গেট থেকে মিরসরাই উপজেলার ধুমঘাট পর্যন্ত ৬৬ কিলোমিটার এলাকায় ২৫৮টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে চলতি বছর দুর্ঘটনায় ৪৬ জন নিহত ও ৩১৭ জন আহত হয়েছেন।

রবিবার সকাল ১০ ঘটিকায় চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার ৩নং কালচোঁ ইউনিয়নের পিরোজপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে প্রথমে বাবা সাইফুজ্জামান ও পরে দুই মেয়ে আশরা আনাম খান (১৩) ও তাসমিন জামান খান (১১) এর জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। হাজারো মানুষের চোখের জলে গ্রামের প্রকৃতিও নিস্তব্দ হয়ে গেছে।

নিহতের ভাই অধ্যাপক মোস্তফা কামাল খান অবলিলায় বলেছেন আমার বাবা কৃষক ছিলেন। আমরা ৬ ভাই ৫ বোন। মিন্টু ভাই-বোনদের মাঝে দশম। ছোট বেলায় বাবার সাথে আমরাও কৃষি কাজ করেছি। এভাবে ভাইকে হারাবো, পরিবারটা তছনছ হয়ে যাবে- তা ভাবতে পারিনি। এভাবে সড়কে কারও প্রাণ হারাতে চাই না।

Facebook Comments

Check Also

অনিয়ম ও দুর্নীতি প্রসঙ্গে শাহরাস্তি ইউএনও বরাবর খোলা চিঠি

বরাবর            ইউ এন ও জনাবা, শিরিন আক্তার শাহরাস্তি উপজেলা, চাঁদপুর …

vv