ব্রেকিং নিউজঃ
Home / প্রিয় অনুসন্ধান / যে কারনে বহিষ্কৃত হয়েছিলো শ্যামল সরকার ও গিয়াস উদ্দিন রানা!
বামে থেকে-শ্যামল সরকার ও গিয়াস উদ্দিন রানা

যে কারনে বহিষ্কৃত হয়েছিলো শ্যামল সরকার ও গিয়াস উদ্দিন রানা!

স্টাফ রিপোর্টার : দৈনিক চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকায় গত ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ইং তারিখে পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার শ্যামল সরকার ও গিয়াস উদ্দিন রানা কে বহিস্কার করার ঘোষণা করা হয়েছে। প্রকাশিত সংবাদে উল্লেখ করা হয়েছিলো, গিয়াস উদ্দিন রানাকে ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ইং এবং শ্যামল সরকারকে ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ইং তারিখ থেকে বহিস্কার করা হলো। তাদের দু’জনের বিরুদ্ধে দৈনিক চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকা কর্তৃপক্ষের দেয়া দায়িত্বে চরম অবহেলা, আর্থিক অনিয়ম, অসাদাচারণসহ নানা অভিযোগের কারণে বহিস্কার করা হয়।

সারমর্মে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো উল্লেখ করা হয়। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, পত্রিকার সন্মানিত পাঠক তাদের অভিযোগগুলো বিস্তারিত জানার জন্য অতিব আগ্রহী হয়ে উঠেছে। পাঠকের চাহিদায় অভিযোগগুলো বিস্তারিত প্রকাশের উদ্যোগ গ্রহণ করে পত্রিকা কর্তৃপক্ষ। দৈনিক চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকা সুনামের সাথে ২৫টি বছর পার করেছে গত ১ জানুয়ারি ২০২০ইং তারিখে। পত্রিকা কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে মাসব্যাপী জেলা, উপজেলায় বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নেয়। সেই পরিপ্রেক্ষিতে চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকায় কর্মরত সকল সাংবাদিকদের উপর বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের দায়িত্ব অর্পন করা হয়। শ্যামল সরকার ও গিয়াস উদ্দিন রানার উপর আন্তঃ প্রাথমিক স্কুল ফুটবল টুর্ণামেন্ট প্রতিযোগিতা (যৌথভাবে) ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা (শ্যামল সরকার) পালনের দায়িত্ব অর্পন করা হয়। যা দু’জনেই সানন্দে গ্রহণ করে। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হলেও আন্ত:প্রাথমিক স্কুল ফুটবল টুর্ণামেন্ট প্রতিযোগিতার বিষয়ে উভয়েই চরম গাফলতি ও দায়িত্বহীনতার পরিচয় দেয়। যার জন্য সবচেয়ে আকর্ষণীয় ইভেন্ট আন্ত:প্রাথমিক স্কুল ফুটবল টুর্নামেন্টটি পত্রিকা কর্তৃপক্ষ আয়োজন করতে পারেনি। এতে করে সম্পাদক ও প্রকাশক মো. আবদুর রহমান বিষয়টি নিয়ে আমন্ত্রিত অতিথিসহ বিভিন্ন মহলে চরম বিব্রতর অবস্থায় পড়েন। পত্রিকা কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা ছিল, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে শুভেচ্ছা বিজ্ঞাপন সংগ্রহ করে আয়ের অংশ দিয়ে অনুষ্ঠান সম্পন্ন করা এবং এ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে সম্পাদককে যথাসময়ে অবহিত করা। অর্থ সংকট হলে সম্পাদককে অবহিত করে এ বিষয়ে আলোচনা করা।

বিজ্ঞাপন আদায়ের জন্য নিদিষ্ট ছাপানো বিজ্ঞাপন ফরমে বিজ্ঞাপন সংগ্রহ করা। কিন্তু শ্যামল সরকার ও গিয়াস উদ্দিন রানা যে ক’টি বিজ্ঞাপন পত্রিকায় প্রকাশ করার জন্য পত্রিকা অফিসে জমা দিয়েছে (ই-মেইলে), কর্তৃপক্ষের বারবার তাগাদা সত্ত্বেও ওই সকল বিজ্ঞাপনের বিজ্ঞাপন ফরম জমা দেয়নি।যার প্রেক্ষিতে বিজ্ঞাপন দাতার কাছ থেকে কত টাকা নিয়েছে? তা কর্তৃপক্ষ জানতে পারেনি। ২/৩টি বিজ্ঞাপন ছাড়া বাকী বিজ্ঞাপনগুলোর সব কয়টি ২৫০/- টাকা হারে জমা দেয়। প্রকাশিত বিজ্ঞাপনের প্রায় অর্ধেক বিজ্ঞাপনের টাকা কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দেয়নি। এদিকে শুনা যাচ্ছে বিভিন্ন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে বিজ্ঞানের নামে এবং ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা উঠিয়ে নিজেদের পকেট ভারী করেছে। ইতোপূর্বে শ্যামল সরকারের বিরুদ্ধে আর্থিক লিপসাসহ নানা কেলেঙ্কারির বেশকিছু অভিযোগ সম্পাদকের দৃষ্টিগোছরে আসে। এসব অভিযোগের বিষয়ে পত্রিকার সাপ্তাহিক সভাগুলোতে তার (শ্যামল সরকার) উপস্থিতিতে আলোচনা করা হয় এবং তাকে এসব বিষয়ে সতর্ক করা হয়। শহরের শীর্ষ রাজনৈতিক ব্যক্তি, সাংবাদিক সংগঠনের শীর্ষ কয়েকজন নেতা শ্যামল সরকারের নানা অপকর্মের বিষয়ে সম্পাদককে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেন।

অভিযুক্ত দু’জন পত্রিকার সাপ্তাহিক সভাগুলোতে খুব কমই যোগদান করেছেন। আবার করলেও যথাসময়ে কখনও আসেননি। এবিষয়ে তাদেরকে বারবার সতর্ক করা হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। মাসাধিকালব্যাপী ২৫ বছর পূর্তি উৎসবের ২/১টি প্রোগ্রাম ছাড়া কোনের প্রোগ্রামেই তারা অংশগ্রহণ করেনি। তাদের চরম গাফিলতি ও দায়িত্বহীনতায় এ উৎসবে পত্রিকা কর্তৃপক্ষকে চরম মানসিক চাপ সহ্য করতে হয়েছে। প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ না করা, দেরীতে আসা নিয়ে জিজ্ঞাসা করলে বরাবরের মত পত্রিকার সিনিয়র সাংবাদিকদের সামনে সম্পাদকের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ, কথাবার্তায় চরম সেচ্ছাচারিতারভাব প্রকাশ করাসহ ‘ডেমকেয়ার’ মনোভাব প্রকাশ করতো।

২৫ বছরপূর্তি উৎসব উপলক্ষ্যে বিভিন্ন ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে বিজ্ঞাপন প্রকাশ করবে বলে টাকা নিয়ে প্রত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রকাশ করার ব্যবস্থা না করে, এমনকি সম্পাদককে অবহিত না করে টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে কয়েকজনের সুনিদিষ্ট অভিযোগও রয়েছে। গত ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২০ইং তারিখে দৈনিক ‘চাঁদপুর প্রতিদিন’ পত্রিকার ৩য় পৃষ্ঠায় ‘প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ’ শীরনামে যে প্রতিবাদটি ওই পত্রিকার কর্তৃপক্ষ প্রকাশ করেছেন। তার অভিযোগের প্রতিটি বাক্যই সম্পূর্ণ অসত্য, বানোয়াট ও মানহানিকর। কিভাবে পত্রিকা কর্তৃপক্ষ অন্য একটি সিনিয়র পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশকের বিরুদ্ধে এমন কুরুচিপূর্ণ মানহানীকর বাক্য ব্যবহার করে একটি অসত্য বিষয়কে ভিত্তি করে প্রতিবাদটি ছাপলেন? ওই পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশকের বিবেকের কাছে প্রশ্ন রইলো? সর্বসাধারণের জ্ঞাতার্থে অত্যন্ত বিনীতভাবে জানাচ্ছি যে, সম্পাদনার ২৫ বছরের ইতিহাসে এমন কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান বলতে পারবেন যে চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক মো. আবদুর রহমান কোথাও থেকে কোন অযুহাতে ৫ টাকা নিয়েছে বা নেয়ার জন্য চেষ্টা করেছে। চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলছি, চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকার ২৫ বছর পূর্তি উৎসবের কোন প্রোগ্রামের কোন অতিথিদের কাছ থেকে কোন টাকা নেয়া হয়নি। যে ২/১ জন অতিথি সহযোগিতা করেছেন তা কেবল বিজ্ঞাপনের বিনিময়েই হয়েছে।

উল্লেখিত প্রসঙ্গঃ দৈনিক চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকা থেকে শ্যামল সরকার ও গিয়াস উদ্দিন রানা বহিষ্কার কেলেঙ্কারি।

Facebook Comments

Check Also

কচুয়ার ১ হাজার টাকাকে কেন্দ্র করে মসজিদের মুয়াজ্জিনের উপর হামলা

নিজস্ব প্রতিনিধি : কচুয়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড কড়ইয়া মুন্সী বাড়ি জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন ও কচুয়া …

vv