ব্রেকিং নিউজঃ
Home / বিশেষ প্রতিবেদন / মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী হলেও জীবনযুদ্ধে পরাজিত হাজীগঞ্জের গাজী আলী আহমদ

মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী হলেও জীবনযুদ্ধে পরাজিত হাজীগঞ্জের গাজী আলী আহমদ

বিশেষ প্রতিনিধি : দেশমাতৃকার জন্য জীবন বাজি রেখে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছিলেন গাজী আলী আহমদ। ছিনিয়ে এনেছেন স্বাধীনতা। কিন্তু পরিণত বয়সে এসে সেই মুক্তিযোদ্ধা এখন জীবনযুদ্ধে হেরে যেতে বসেছেন। একদিকে, নেই নিজের বসতবাড়ি।

অন্যদিকে, প্রতিবন্ধী দুই সন্তানকে সামাল দেওয়া। তার ওপর মরণব্যাধী ক্যান্সারের ওষুধ কেনার কঠিন ধাক্কা। এসব মিলিয়ে দুর্বিসহ জীবন কাটাচ্ছেন চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের মুক্তিযোদ্ধা গাজী আলী আহমদ (৭৫)।

হাজীগঞ্জ উপজেলার হাটিলা ইউনিয়নের ধড্ডা গ্রামের সন্তান মুক্তিযোদ্ধা গাজী আলী আহমদ। তিনি জানান, উচ্চ মাধ্যমিকে পড়ার সময় মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন। দেশ স্বাধীন হয়। কিন্তু শিক্ষাজীবনে ফিরে যেতে পারেননি তিনি। গ্রাম ছেড়ে পাড়ি দেন রাজধানী ঢাকায়। কোথাও ছোটখাটো চাকরি পাবেন। এমন আশায় সেখানে ঘুরে বেড়ান। একপর্যায়ে উপায়ন্তর না পেয়ে কাঁধে তুলে নেন পান সিগারেটের হকারির পেশা। বয়স বাড়তে শুরু করে। ততদিনে বিয়ে করেন। এখন চার সন্তানের বাবা মুক্তিযোদ্ধা গাজী আলী আহমদ। তারমধ্যে দুই সন্তান শারীরিক প্রতিবন্ধী। অন্য দুই সন্তানের বিয়ে হয়েছে।

তবে নিজের জমি না থাকায় অন্যের আশ্রয়ে পরিবার নিয়ে থাকতে হয় মুক্তিযোদ্ধা গাজী আলী আহমদকে। সেখানেও থাকা এখন অনিশ্চিত। ফলে কয়েকদিন পর প্রতিবন্ধী দুই সন্তান এবং বৃদ্ধা স্ত্রীসহ কারো খোলা জায়গায় অবস্থান করতে হবে গাজী আলী আহমদকে।

মুক্তিযোদ্ধা গাজী আলী আহমদ কষ্ট নিয়ে বলেন, সরকার প্রতিমাসে ১২ হাজার টাকা ভাতা দিচ্ছে। নিজের ক্যান্সারের ওষুধ, প্রতিবন্ধী সন্তানদের চিকিৎসা এবং দুই বেলা খাবার। সবই এই টাকার মধ্যে চলছে। তিনি বলেন, জমি থাকলে ঘর হবে। কিন্তু নিজের জমি নেই বলে আজ সরকারিভাবে ঘরও পাচ্ছি না। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, বাপ দাদার একটু জমি থাকলে আজ আমার এমন করুণ পরিণতি হতো না।

এই বিষয় হাজীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বৈশাখী বড়–য়া জানান, মুক্তিযোদ্ধা গাজী আলী আহমদ ভূমি বন্দোবস্তের জন্য যদি আবেদন করেন। তা হলে সর্বাধিক বিবেচনায় তার পাশে দাঁড়াবে উপজেলা প্রশাসন।

Facebook Comments

Check Also

থেমে না থাকা এক মেয়র

বিশেষ প্রতিনিধি : গাড়ীর সামনে সিটে থাকে কয়েকটি ব্যাগ। গাড়ীর পেছনে থাকে চাল, ডাল, আলু ও …

vv