ব্রেকিং নিউজঃ
Home / ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর / মহামায়ায় মসজিদ থেকে মাস্কের সচেতনতামূলক পেস্টুন খুলে ফেলার অভিযোগ!
চাঁদপুর সদর উপজেলার মহামায়া এলাকার কয়েকটি মসজিদে মাস্ক পরিধানের সচেতনতামূলক পেস্টুন লাগানো ও পরবর্তীতে খুলে ফেলার চিত্র।

মহামায়ায় মসজিদ থেকে মাস্কের সচেতনতামূলক পেস্টুন খুলে ফেলার অভিযোগ!

মাসুদ হোসেন : মসজিদ-মন্দিরসহ সকল উপাসনালয়ের মূল ফটকে মাস্ক পরিধান করে ভিতরে প্রবেশ ও মাইকে প্রচার-প্রচারণার জন্য গত ১৮ নভেম্বর ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কায় মসজিদ-মন্দিরসহ সকল উপাসনালয়ের কমিটিকে প্রতিষ্ঠানের মূল ফটকে “নো মাস্ক, নো সার্ভিস” লেখা সম্বলিত ডিজিটাল ব্যানার বা পেস্টুন লাগাতে হবে। এবং সেই সাথে প্রতি ওয়াক্ত নামাজের পূর্বে মসজিদের মাইকে মাস্ক পরিধান করে মসজিদে আসার জন্য মাইকিং করার অনুরোধ জানিয়েছেন।
তারই আলোকে সরকারী নিবন্ধনকৃত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রভাত সমাজকল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে চাঁদপুর সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মসজিদসহ মহামায়ার আশেপাশে কয়েকটি মসজিদে ইতিমধ্যে মাস্ক পরিধানের সচেতনতা বিষয়ক পেস্টুন লাগিয়েছে।
পেস্টুনে উল্লেখ করেন- করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে মাস্ক ব্যবহার ব্যতীত মসজিদে প্রবেশ না করার জন্য অনুরোধ। নো মাস্ক, নো এন্ট্রি। কিন্তু এসব পেস্টুন জনসচেতনতায় লাগালেও অনেকে এটাকে ভালো ভাবে না নিয়ে মসজিদ থেকে খুলে ফেলার অভিযোগ করেছেন প্রভাত মহামায়া শাখার সহ সভাপতি মোঃ জুয়েল হাজী। তিনি বলেন, গত ১২ নভেম্বর আমরা চাঁদপুর সদরের বিভিন্ন মসজিদের মূল ফটকে মাস্ক পরিধানের সচেতনতামূলক পেস্টুন লাগিয়েছে। কিন্তু কারা যেন কয়েকটি মসজিদ থেকে খুলে নিয়েছে। পেস্টুন অপসারণের বিষয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশন ও জেলা প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
শুক্রবার (২০ নভেম্বর) অভিযোগের ভিত্তিতে চাঁদপুর সদর উপজেলার মহামায়া বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ, মধুরোড স্টেশন বায়তুল আমিন জামে মসজিদ ও পূর্ব লোধেরগাঁও বায়তুল হামদ জামে মসজিদে সংগঠনের লাগানো পেস্টুনগুলো লাগানো নেই।
এ বিষয়ে মহামায়া বাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু তাহের খোকা পাটওয়ারী জানান, আমরা সরকারের এবিষয়টি গুরুত্ব দিচ্ছি। মসজিদে তো অনেক মুসল্লি আসে, কারা খুলছে তা আমরা বলতে পারছি না। তবে কে বা কাহারা খুলছে বিষয়টি খতিয়ে দেখছি। এবং এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। প্রভাত মহামায়া শাখার উপদেষ্টা ও রামপুর ইউপি চেয়ারম্যান আল মামুন পাটওয়ারী বলেন, সংগঠনের এমন কাজ তো জনকল্যাণমূলক। কারো বিরুদ্ধে না। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক।
শাহমাহমুদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান স্বপন মাহমুদ বলেন, সংগঠনের এমন উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই। তবে কে এমন কাজ করেছে আমি গ্রাম পুলিশ পাঠিয়ে খোঁজ নিয়ে কমিটিদের সাথে কথা বলবো।
ইসলামীক ফাউন্ডেশন চাঁদপুরের উপপরিচালক মোঃ খলিলুর রহমান বলেন, জেলায় ৭ হাজার ২শ’ ৪২টি মসজিদে প্রায় ১২শ’ গণশিক্ষা কেন্দ্র রয়েছে। এর মধ্যে ৪শ’ জন মহিলা ব্যতীত ৮শ’ জন পুরুষ ইমাম নিয়োজিত আছেন। তাদের মাধ্যমে মানুষকে এত বুঝাচ্ছি কিন্তু তারা সচেতন হতে চান না। সরকারের হয়ে কাজ করা সংগঠনের এমন কার্যক্রমকে আমি স্বাগত জানাই। যারাই মসজিদ থেকে পেস্টুনগুলো খুলে ফেলছে তারা কাজটা মোটেও ঠিক করেননি। এ দায়িত্ব তো সংশ্লিষ্ট মসজিদ কমিটির।
চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামান দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, মসজিদের মূল ফটকে মাস্ক পরিধানের বিষয়ে সচেতনতা মূলক ডিজিটাল ব্যানার/পেস্টুন লাগানো মসজিদ কমিটিকে ধর্মমন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনও সকল মসজিদে বিষয়টি সম্পর্কে জানানো ও চিঠি দেওয়ার কথা। কিন্তু কারা এমন কাজ করেছে তারা এমন কাজ না করলেও পারতেন।
Facebook Comments

Check Also

হাজীগঞ্জে চুরি হওয়া দুই মোটরসাইকেল সহ চোর গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার : কুমিল্লা চৌদ্দগ্রাম থেকে হোন্ডা চোর মনির হোসেনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে হাজীগঞ্জ …

Shares
vv