ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / মতলবের উপাদী দক্ষিণে মুদি দোকানে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৬ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি

মতলবের উপাদী দক্ষিণে মুদি দোকানে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৬ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি

মাসুদ হোসেন : মতলব দক্ষিণ উপজেলার ৬নং উপাদী দক্ষিণ ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড পূর্ব ধলাইতলীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে একটি সুসজ্জিত মুদি দোকানের মালামাল পুড়ে ছাঁই হয়ে গেছে। এতে দোকানঘর সহ নগদ টাকা, মোবাইল কার্ড ও মালামাল পুড়ে প্রায় ৬ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়।

বিদ্যুতের সর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। খবর পেয়ে দমকল বাহিনী পাশের এলাকা পর্যন্ত আসতে পারলেও রাস্তা চলাচলের অনুপযোগি (পাকা করন কাজ চলমান) হওয়ায় ঘটনাস্থলে পৌছতে পারেনি।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, বুধবার (৯ অক্টোবর) ভোর রাত ২ টায় (মঙ্গলবার দিবাগত রাত) পূর্ব ধলাইতলী (হাজী মার্কেট) রিয়াদ স্টোরে অগ্নিকান্ডে সকল মালামাল পুড়ে ছাঁই হয়ে পড়ে আছে। রাতে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হওয়া সাবেক ইউপি সদস্য সফিকুল ইসলাম সহ প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ডাক চিৎকারে অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে দেখেন সাটার লাগানো দোকানের ভিতর মালামালগুলো আগুনে পুড়ছে।

দোকানের মালিক আব্দুর রহমান মুন্সি খবর পেয়ে এসে দোকানের সাটার খুলতে পারলেও ততক্ষনে সব মালামাল পুড়ে গেছে। আব্দুর রহমান জানান, তিনি দীর্ঘবহু বছর যাবত একই এলাকার বিল্লাল বেপারী পাকা দোকান ঘরে ভাড়াটিয়া হিসেবে মুদি ব্যবসা করে আসছেন। প্রতিদিনের ন্যায় তিনি গত ৮ অক্টোবর মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮ টায় দোকান বন্ধ করে বাড়ীতে চলে যান। পরে রাতে এমন দূর্ঘটনা ঘটে।

তিনি আরো জানান, পাশ্ববর্তী করবন্দ গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায় সরকার বাড়ীর জেলেরা জাল নিয়ে মাছ ধরতে যাওয়ার সময় উক্ত দোকান আগুনে পুড়ছে দেখে ডাক চিৎকার দিয়ে সামান্য কাছেই বসবাস করা ইউছুফকে জানালে ইউছুফ দৌড়ে গিয়ে আমাকে অগ্নিকান্ডে খবর জানায়। পরে আমি ডাক চিৎকার দিয়ে এসে দোকানের পুড়ে যাওয়া দৃশ্য দেখি। এ সময় আশেপাশের লোকজন এসে জড়ো হয়ে আগুন নেভাতে চেষ্টা করলেও ততক্ষনে মালামালগুলো পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়।

এদিকে ক্ষয় ক্ষতির বিষয়ে জানতে চাইলে দোকানদার আব্দুর রহমান মুন্সি জানান, ২লক্ষাধিক টাকার মালামাল, নগদ ১০/১২ হাজার টাকা এবং ৫/৬ হাজার টাকা মূল্যের মোবাইল রিচার্জ কার্ড পুড়ে যায়।

এছাড়া ভয়াবহ আগুনে একতলা পাকা দোকানঘর যেভাবে পুড়েছে, এতে আগুনের তীব্রতায় তার পাশের দোকানঘরেরও ক্ষতি হয়েছে। মুদি দোকানঘরের ছাঁদ ও দেওয়াল ফেটেছে এবং আস্তর খশে পড়ছে। এতে দোকানঘরের প্রায় ৪ লাখ টাকার ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে বলে উপস্থিত লোকজন ধারনা করেন। ধারনা মতে অগ্নিকান্ড সর্বমোট ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ৭লক্ষ টাকা হবে।

এছাড়া সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, এমমকি ক্রেতাদের বাকীতে নেওয়া টাকার হিসেবের খাতাগুলোও পুড়ে গেছে। ক্রেতাদের থেকে প্রায় ৩লাখ টাকার মত পাওনা রয়েছেন বলে আব্দুর রহমান জানান। এখন এসব টাকা কিভাবে পাবেন বা কাস্টমার দিবেন কিনা এ বিষয়ে চরম সংশয় ও হতাশার মধ্যে রয়েছেন।

এদিকে খবর পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফার প্রতিনিধি ইউপি সদস্য সোহেল হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্থ্য পরিবারকে সান্তনা দেন।

Facebook Comments

Check Also

চাঁদপুর তিন নদীর মোহনায় সিমেন্টের জাহাজ ডুবি

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর পদ্মা-মেঘনা ডাকাতিয়া তিন নদীর মোহনায় স্রোতের তোপে চাইর হাজার বস্তা বোঝাই সিমেন্টের …

vv