ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / ফরিদগঞ্জে ফের কিশোরী ধর্ষনের অভিযোগ
প্রতীকী ছবি

ফরিদগঞ্জে ফের কিশোরী ধর্ষনের অভিযোগ

এস.এম ইকবাল : চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলায় ১৭ বছরের এক কিশোরীকে দুদিন আটকে রেখে ধর্ষণের ও নিপীড়ন অভিযোগ উঠেছে কিশোরীর ক্লাস সহপাঠীর বিরুদ্ধে।

২২ আগস্ট শনিবার সকালে ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে নারী ও শিশু আইনের ধর্ষন মামলা করেছেন। পুলিশ কিশোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

জানা যায়, ১৯ আগস্ট ফরিদগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে ঘটনার পর পর অভিযুক্ত যুবক এলাকা থেকে পালিয়েছে।

কিশোরীর মা জানান, আমার মেয়ে ২০২০ সালে এসএসসি পাস করে। গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের চররাঘবরায় গ্রামের আমানউল্লাহ আমানের ছেলে মেহেদী হাসান মিরাজ ও আমার মেয়ে সহ একসঙ্গে একই ইস্কুলে পড়ালেখা করতো, সেই সুবাদে মিরাজ আমার মেয়েকে প্রেমের প্রস্তাব দিত। এতে সাড়া না দেয়ায় খিপ্ত হয়ে মিরাজ গত বুধবার গভীর রাতে আমার মেয়ে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে গেলে কিশোরীকে অপহরণ করে দু’দিন আটকে রেখে ধর্ষণ করে।

পরে আমার মেয়ে কৌশলে পালিয়ে এসে আমাদের বিষয়টি জানায় এবং আমি আমার মেয়েকে নিয়ে আজ শনিবারে ফরিদগঞ্জ থানায় এসে মামলা করি। থানা পুলিশ মামলাটি গ্রহণ করে তাকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে পাঠায়।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত মিরাজের বাবা সংশ্লিষ্ট এলাকার বর্তমান মেম্বার আমানউল্লাহ জানান, আমার ছেলে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয়। কৌশলে আমার ছেলেকে ফাঁসানো হয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমার ছেলে যদি এই দরনের অপরাদ করে থাকে তাহলে আমি তার উপযোক্ত শাস্তি চাই।

এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার ওসি আবদুর রকিব জানান, কিশোরী ধর্ষনের বিষয়ে আমরা মামলা গ্রহণ করে ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছি এবং অভিযুক্তকে আটকের চেষ্টা চলছে।

উলেখ্য: গত কয়েক দিন আগে ফরিদগঞ্জ পৌরসভার ভাটিয়ালপুর এলাকায় দুই ছাত্রী দর্ষনের অভিযোগ করে থানায় অভিযোগ দায়ের করে ছাত্রীর পরিবার ।

Facebook Comments

Check Also

ফরিদগঞ্জে ভাতিজার হাতে চাচী ধর্ষণ,  ধর্ষণের ভিডিও পাঠিয়ে টাকা দাবী

এস.এম ইকবাল: চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার চরদু:খিয়া পশ্চিম ইউনিয়নের বিষকাঁটালী গ্রামে ভাতিজা কর্তৃক চাচীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে, সেই ধর্ষণের ভিডিও মোবাইলে ধারন করে সৌদিপ্রবাসী স্বামীর কাছে পাঠিয়ে অর্থ দাবী করার অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করেছে ভূক্তভোগী। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত রিয়াদ নামে এক যুবককে আটক করে আদালতে প্রেরণ করেছে। থানায় দায়েরকৃত মামলা অনুযায়ী জানাযায়, ওই ইউনিয়নের চৌকিদার বাড়ির সৌদি আরব প্রবাসী মোস্তফা কামালের স্ত্রী শারমিন আক্তারকে একই বাড়ির শফিকুর রহমানের প্রবাস ফেরত ছেলে রিয়াদ হোসেন ভয়ভীতি দেখিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষন করে, অবৈধ শারিরিক সর্ম্পকের একটি ভিডিও মুঠো ফোনে ধারণ করে রিয়াদ নিজেই। পরে সে নিজেই শারমিনের স্বামীর কাছে সেই ভিডিও চিত্র ও ছবি পাঠিয়ে অর্থ দাবী করে। পরে শারমিন বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় সোমবার লিখিত অভিযোগ করেন। পুলিশ অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করে অভিযুক্ত রিয়াদকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করে। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই কাজী মো: জাকারিয়া জানান, মামলার অন্য আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা ও আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি নেয়া হয়েছে। Facebook Comments

vv