ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / ফরিদগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলা ও ভাংচুর, থানায় অভিযোগ

ফরিদগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলা ও ভাংচুর, থানায় অভিযোগ

এস এম ইকবাল : ফরিদগঞ্জ সন্ত্রাসী কায়দায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্রকরে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এই নিয়ে এলাকাতে তোলপাড় চলছে। স্থানীদের দাবি এই সমস্যা দ্রুত সমাধান না হলে যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে। এই বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ভোক্তভূগীরা।

সরজমিনে গিয়ে জানাযায়, উপজেলার ১০নং গোবিন্দপুর উত্তর ইউনিয়নের পশ্চিম লাড়ুয়া গ্রামে সন্ত্রাসী কায়দায় হামলার শিকার হন গাজী বাড়ির লোক জন। এই সময় দেশিয় অস্রসহস্র সহ প্রায় ২০/২৫জন লোক সন্ধায় বাড়িতে এসে ঘর বাড়ি ভাংচুর চালায়, পরে বাড়ির লোক জনের ডাক চিৎকারে শুনে আসে পাশের লোকজন ঘটনাস্থলে আসলে, হামলা কারিরা দ্রুত পালিয়ে যায়।

এসময় হাজেরা বেগমের ঘর ভাংচুর করে এবং জুলেখা বেগম (৭০) নামে এক বৃদ্ধা হামলার শিকার হন জানান স্থানী লোকজন। হামলার ঘটনা শোনে সোমবার রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থলে পরির্দশন করেন।

মঙ্গলবার সন্ধায় ভোক্তভূগীর পক্ষে সাইফুল ইসলাম গাজী ৭জনকে আসামী করে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগ কারীরা হলেন, মোশারফ ভূঁইয়া (৫০), মঞ্জু ভূঁইয়া (৩৫), সিয়াম (২২), জহির ভূঁইয়া (৩৫), রিফাত হোসেন (১৯), নজির ভূঁইয়া (৫৫) ও মহিন পাটওয়ারী (১৯)।

ভোক্তভূগী হাজেরা বেগম বলেন, পাওনা টাকা কে কেন্দ্র করে উভয়ের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মোশারফ ভূঁইয়াসহ ২০/২৫জনের একটি দল দেশিয় অস্রসস্ত্র নিয়ে আমাদের উপর অতর্কিত হামলা চালায় এবং আমাদের ঘর বাড়ি ভাংচুর করে। হামলায় আমাদের ২লক্ষ টাকার মত ক্ষতি সাধিত হয়।

অভিযুক্ত মোশারফ ভূঁইয়া বলেন, আমার ছেলের সাথে তাদের টাকার লেনদেন ছিল। পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় ঘটনাটি ঘটেছে। আমার মেয়ে অসুস্থ থাকার কারনে আমি মেয়ের বাড়িতে ছিলাম।

এবিষয়ে থানার অফিসার ইনর্চাজ মোহাম্মদ শহীদ হোসেন বলেন, উল্লেখিত বিষয়ে থানায় অভিযোগ হয়েছে। তদন্ত শেষে প্রযোজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

Facebook Comments

Check Also

আজ ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ

নিজস্ব প্রতিনিধি : আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ। বাঙালি জাতির দীর্ঘ স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এক …

Shares
vv