ব্রেকিং নিউজঃ
Home / ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর / নিরাপত্তা বাহিনী ছাড়াই ফরিদগঞ্জে রাষ্ট্রপতির ছেলে !
গ্রামের টং দোকানে নিরাপত্তা বাহিনীর প্রটোকল ছাড়াই এলাকার খেটে খাওয়া মানুষের সাথে চা পান করছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহামান্য রাষ্ট্রপ্রতি এ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদের সুযোগ্য সন্তান রাসেল আহমেদ তুহিন।

নিরাপত্তা বাহিনী ছাড়াই ফরিদগঞ্জে রাষ্ট্রপতির ছেলে !

এস.এম ইকবাল : রাষ্ট্রপতি ছেলে বটে। তিনি পিতার মতোই বিনয়ী ও ভদ্র স্বভাবের সাদা মাটা একজন মানুষ। তার আচরনে বুঝা গেলো তার নেই কোন অহংকার, নেই কোন ক্ষমতার দাম্বিকতা। সাথে নেই কোন সরকারী প্রটোকল, পুলিশ কিংবা কোন নেতাকর্মীর মোটর সাইকেলের মহড়া। দেখে কিংবা তার কথা শুনে মনেই হয়নি তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহামান্য রাষ্ট্রপ্রতি সর্বজন শ্রদ্ধেয় এ্যাডভোকেট আব্দুল হামিদের সুযোগ্য সন্তান প্রচার বিমূখ রাসেল আহমেদ তুহিন।

ফরিদগঞ্জে রাষ্ট্রপতির ছেলের আচরন ও ব্যবহারে দেখে মুগ্ধ হয়ে স্থানীয়রা বলছেন, তিনিই সত্যিকার অর্থে একজন ভাল মনের মানুষ। অথচ বিশাল ক্ষমতাধর এ ব্যক্তিটি ফরিদগঞ্জের প্রত্যন্ত অঞ্চল ৫নং গুপ্টি ইউনিয়নের গল্লাক এলাকায় থেকে গেলেন তিন দিন। যা আগে থেকে কেউই জানতেন না। ফরিদগঞ্জে রাষ্ট্রপতির ছেলের থাকা এক বন্ধুর আমন্ত্রনে তুহিন এসেছিলে গল্লাকে বেড়াতে।

রাষ্ট্রপতির ছেলে তুহিনকে স্বচক্ষে দেখে এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, তিনদিন যাবৎ উপজেলার গল্লাক এলাকার গনমানুষের সাথে খোশগল্প করে সময় কাটান। সারাদিন মাটিতে বসে থেকে বড়শি বেয়ে মাছ ধরেছেন। ঘুরে ঘুরে বিভিন্ন টংয়ের চায়ের দোকানে সাধারন মানুষের সাথে বসে চা পানে আনন্দ উল্লাসে সময় কাটিয়েছেন। ওই এলাকার গল্লাক বাজারে ৪ তলা বিশিষ্ট একটি জামে মসজিদের নির্মান কাজের শুভ উদ্ভোধন করেন তিনি।

উক্ত মসজিদের নির্মান কাজ আনুষ্ঠানিক ভাবে উদ্ভোধন উপলক্ষে গত বুধবার বিকেলে গল্লাক বাজারে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এলাকার সমাজ সেবক ও শিক্ষানুরাগী উক্ত মসজিদ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব ফয়েজ আহাম্মেদ মোল্লার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে মহামান্য রাষ্ট্রপতির সুযোগ্য সন্তান মোঃ রাসেল আহমেদ তুহিন তার বক্তব্য ফরিদগঞ্জবাসীর আতিথেয়তায় মুগ্ধ হওয়ার কথা উল্লেখ করে বলেন, এখানে ফয়েজ আহাম্মেদ মোল্লার মহতি উদ্যেগে অত্যাধূনিক মানের মসজিদ নির্মানের জন্য আমার মতো ক্ষুদ্র মানুষকে দিয়ে এই মসজিদ নির্মানের শুভ উদ্ভোধন করা হবে, এটা আমি কখনো স্বপ্নেও ভাবিনি।

এটা আমার জীবনে জন্য শ্রেষ্ঠ অর্জন বলে আমি মনে করি। তিনি উপস্থিত জনতার কাছে তার বাবা ও মায়ের জন্য দোয়া প্রার্থনা করে আরো বলেন, এই মসজিদটির প্রথম তলার কাজ শেষে জুমার নাজাম আদায় করার ইচ্ছে পোষন করেছেন রাষ্ট্রপতির ছেলে রাসেল আহামেদ তুহিন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক হুমায়ুন আহাম্মেদ কবির, প্রবীন রাজনীতিবিদ আব্দুর রশিদ পাটওয়ারী এ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলী মজুমদার, আনোয়ার হোসেন খোকন আখন্দ, প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক ও আওয়ামী গুনীজন স্মৃতি সংসদের সভাপতি আবুল হাসনাত প্রমুখ।

Facebook Comments

Check Also

চাঁদপুর পৌর ৫নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী সাইফুর রহমান মিশু

অমরেশ দত্ত জয় : চাঁদপুর পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ছাত্রনেতা ও তরুন সমাজসেবক …

vv