ব্রেকিং নিউজঃ
Home / আইন-আদালত / দৈনিক চাঁদপুর সংবাদের সম্পাদকের বিরুদ্ধে ৫ কোটি টাকার মামলা

দৈনিক চাঁদপুর সংবাদের সম্পাদকের বিরুদ্ধে ৫ কোটি টাকার মামলা

স্টাফ রিপোর্টার : ৩ সেপ্টেম্বর (বৃহস্পতিবার) সকালে চাঁদপুর মোকাম বিজ্ঞ আমলী আদালতে দৈনিক চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক আবদুর রহমানের বিরুদ্ধে ৫ কোটি টাকার মানহানী মামলা দায়ের করে সাংবাদিক শ্যামল সরকার।

মামলার বিবরণে জানা যায়, দায়েরকৃত মামলার আসামী দৈনিক চাঁদপুর সংবাদের সম্পাদক আবদুর রহমান দুষ্ট, দুর্দান্ত, প্রতারক, মানহানীকারক, ঠকবাজ, বিশ্বাসভঙ্গকারী। মামলার বাদী ও ১নং স্বাক্ষী গিয়াস উদ্দিন রানা আসামীর সম্পাদিত ও প্রকাশিত দৈনিক চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে দীর্ঘদিন যাবত কাজ করেছিল। পরবর্তীতে মামলার বাদী সাংবাদিক শ্যামল সরকার ও ১নং স্বাক্ষী গিয়াস উদ্দিন রানা সাথে পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের বিষয়ে মনোমালিন্য তৈরি হলে আসামী তার মালিকানাধীন দৈনিক চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকার ১ম পাতায় গত ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ইং (মঙ্গলবার) ‘‘পত্রিকা কর্তৃপক্ষের দেয়া দায়িত্বে চরম অবহেলা, আর্থিক অনিয়ম, অসৎ আচরণসহ নানা অভিযোগ” এনে আসামীর মালিকানাধীন পত্রিকায় প্রদত্ত ক্ষমতা বলে বাদী ও ১নং স্বাক্ষীকে ওই পত্রিকার কার্যক্রম থেকে বহিস্কার করে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, সরেজমিনের বিপরীত ও মানহানিকর কাজ করে। প্রকৃত ঘটনা হল আসামীর উক্ত পত্রিকাটি দীর্ঘ ২৫ বছর যাবত সংবাদ প্রচার করে আসছে।

১ জানুয়ারি ২০২০ইং তারিখ পত্রিকাটি ২৫ বৎসরে পর্দাপন করে। পত্রিকার ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে পত্রিকা কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করার সিদান্ত নেয়। এতে সংবাদকর্মিদেরকে মাসব্যাপী জেলা, উপজেলায় বিভিন্ন কর্মসূচীর দায়িত্ব প্রদান করেন।

আসামী আবদুর রহমান মামলার বাদীকে চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা এবং ১নং স্বাক্ষী গিয়াস উদ্দিন রানাকে আন্তঃপ্রাথমিক স্কুল ফুটবল টুর্নামেন্ট পরিচালনার দায়িত্ব দেয়। চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা সম্পন্ন হলে আসামী আবদুর রহমান মামলার বাদী ১নং স্বাক্ষীর বিরুদ্ধে মান-সম্মান ক্ষুন্নসহ অসৎ উদ্দেশ্যে উল্লেখ করে তার পত্রিকায় গত ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ইং তারিখে মনগড়া ও মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে। যার দরুন মামলার বাদী ও ১নং স্বাক্ষী হয়রানী ও মান-সম্মানহানির সম্মুখীন হন। মামলার আসামী তার প্রদত্ত ক্ষমতা বলে যা ইচ্ছা তাই পত্রিকার মতো একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে মামলার বাদী ও ১নং স্বাক্ষীর চরম মানহানি করে তাদেরকে সমাজের চোখে অপরাধী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। অন্যদিকে মামলার আসামী আবদুর রহমান তার পত্রিকায় উল্লেখিত অভিযোগের বিষয়ে কোন প্রমান পত্রিকায় প্রকাশ করে না, এমনকি মামলার বাদী ও ১নং স্বাক্ষীগণকে মামলায় উল্লেখিত বিষয়ে কোনরূপ মৌখিক বা লিখিত কারণ দর্শানোর জন্য নোটিশও করেনি যা আইনগতভাবে অবৈধ।

মামলার বিবরণে আরও জানা যায়, ইতিপূর্বেও আসামী চাঁদপুর সংবাদ পত্রিকার সম্পাদক আবদুর রহমান মামলার ১নং স্বাক্ষীর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তুলে গত ৫ মার্চ ২০১৭ইং তারিখে তার পত্রিকা থেকে কোন প্রকার কারণ দর্শানো ব্যতিত বহিস্কার করে ৭ মার্চ ২০১৭ইং উক্ত বিষয়ে ছবিসহ সংবাদ প্রকাশ করে ১নং স্বাক্ষীর মান-সম্মান ক্ষুন্ন করে।

পরবর্তীতে এই মামলার আসামী আবদুর রহমান তার ভুল বুঝতে পেরে ১নং স্বাক্ষীর কাছে ক্ষমা চেয়ে তাকে পুনরায় ৮ মার্চ ২০১৭ইং তারিখে তার পত্রিকায় যোগদান করিয়ে পরের দিন তার পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করে। আসামী আবদুর রহমান মামলার বাদী ও ১নং স্বাক্ষীর বিরুদ্ধে উক্ত মিথ্যা অপপ্রচার ও মানহানিকর বক্তব্যের ষ্ট্যাটাস দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বাদী ও ১নং স্বাক্ষীগণের সামাজিক মান-মর্যাদা ক্ষুন্ন করে।

বাদী ও ১নং স্বাক্ষীর সারা জীবনের অর্জন ৫ কোটি টাকার মানহানীকর কাজ করে। আসামী আবদুর রহমানের এহেন কর্মকান্ডে মামলার বাদী ও ১নং স্বাক্ষীদের অপুরণী ক্ষতিসাধন হয়।

Facebook Comments

Check Also

চাঁদপুরে প্রথম আলো সম্পাদকসহ ৪জনের বিরুদ্ধে মামলা

আদালত প্রতিবেদক : দৈনিক প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানসহ পত্রিকার ৪জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা করা …

vv