ব্রেকিং নিউজঃ
Home / তথ্যপ্রযুক্তি / জেলার সব স্কুলে ফ্রি অ্যাপস দিবে চাঁদপুরের তরুণ ইঞ্জিনিয়াররা

জেলার সব স্কুলে ফ্রি অ্যাপস দিবে চাঁদপুরের তরুণ ইঞ্জিনিয়াররা

প্রিয় চাঁদপুর : ক্লাস রুটিন,ক্লাসের পড়া,সিলেবাস,এক্সাম রুটিন, রেজাল্ট,অনলাইনে বই পড়া,অ্যাসাইনমেন্ট সহ ইত্যাদি সব ঘরে বসেই পাবে শিক্ষার্থীরা।

এছাড়াও দেখা যাবে প্রতিষ্ঠানের গুরুত্বপূর্ণ সব নোটিশ,পরীক্ষার রেজাল্ট, একাডেমিক ক্যালেন্ডার ও প্রতিদিনের সব ক্লাস লেকচার। তথ্য-প্রযুক্তির ছোঁয়ায় এরকম আকর্ষনীয় সব সুযোগ-সুবিধা প্রাপ্তির খবর আমেরিকা কিংবা লন্ডনের কোন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের জন্য নয়; এসব সহ আরো দারুণ দারুণ আকর্ষনীয় ও অভাবনীয় সুবিধা পাচ্ছে চাঁদপুরের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা।

শুনলে চমকে যাওয়ার মতো! শুধু শিক্ষার্থীরাই নয় এরকম আরো অসংখ্য সুবিধা একইসাথে পাবেন প্রতিষ্ঠানের পরিচালক, শিক্ষকবৃন্দ ও সচেতন অভিভাবকগণ।

জেলায় শিক্ষার মানোউন্নয়নে ও কোমলমতি শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার পতি আগ্রহ বাড়াতে হঠাৎ করেই কালো পোশাকে খুশির বার্তা নিয়ে চাঁদপুরে হাজির একদল তরুণ ইঞ্জিনিয়ার। দেখে মনেই হবে তারা যেন জেলাবাসীর জন্য প্রাপ্তির দূত হয়ে এসেছে। মাতৃভূমির প্রতি গভীর প্রেম আর ভালোবাসা যেন তাদের রাজধানী থেকে এবার নিজ জন্মভূমিতে টেনে এনেছে।

চাঁদপুরের একদল তরুণ ছেলে যারা রাজধানীর সুনামধণ্য প্রতিষ্ঠান থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করে নিজেদের ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় গড়ে তুলেছে ‘রেটিনা সফট’ (RETINA SOFT) নামে একটি প্রতিষ্ঠান।

সারা বাংলাদেশে প্রতিষ্ঠানটির বিস্তৃতি ও সুনাম থাকলেও জন্মভূমির টানে বাংলাদেশের শিক্ষা খাতকে উন্নয়ন ও বহির্বিশ্বের কাছে আরো শক্তিশালী করার লক্ষ্যে গৃহীত প্রজেক্ট ‘এডু ফ্লিট’ (EDU FLEET- Digitize Education System) প্রজেক্ট শুরু করতে যাচ্ছে খোদ চাঁদপুর থেকেই।

আর নিজ জেলার কোমলমতি শিক্ষার্থীদের জন্য যেটি থাকবে সম্পূর্ণ ফ্রি । প্রযুক্তির অমৃত সুবিধা ও আধুনিক শিক্ষা বিস্তৃর্ণরুপে ছড়িয়ে চাঁদপুরের আনাচে-কানাচে পৌছে দিতে প্রস্তুত ওরা একদল তরুণ। তাদের এ প্রচেষ্ঠা পৌছে যাবে চরাঞ্চল সহ ও জেলার প্রত্যেকটি প্রত্যন্ত অঞ্চলেও।

সোমবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে জেলার স্বনামধন্য বিদ্যাপীঠ হাসান আলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসের আয়োজনে প্রধান শিক্ষকদের মাসিক সমন্বয় সভায় তারা এ স্বপ্ন ও আকাঙ্ক্ষার কথা তুলে ধরেন। এসময় উপজেলা শিক্ষা অফিসার, সহ উপজেলার সকল প্রতিষ্ঠানের শত প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষিকারা উপস্থিত ছিলেন।

তারা জানায়, বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর মতো বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে ডিজিটাল করার লক্ষ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রহণ করেছেন ‘এডুকেশন ডিজিটালাইজেশন ভিশন-২০২১’ । আমাদের লক্ষ্য সরকারের এই ভিশন বাস্তবায়নে সহযোগিতা করা।

আমাদের সফটওয়্যারটি সকল ডিভাইস রেস্পন্সিভ এবং আমেরিকার উন্নতমানের ক্লাউড সার্ভার এর সাথে যুক্ত। তাই যুগের সাথে তাল মিলিয়ে বিশ্বের উন্নত দেশের ছাত্র-ছাত্রীদের মতো বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা যেন ডিজিটাল শিক্ষা ব্যবস্থার সাথে পরিচিত হতে পারে, সেই উদ্দেশ্যে মডেলিং করা হয়েছে আমাদের সফটওয়ারটি’কে।

আমাদের সফটওয়্যারটি ছাত্র-ছাত্রীদেরকে ডিজিটাল এডুকেশন সিস্টেমের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,ম্যানেজমেন্ট কমিটির ও শিক্ষকদের সকল কাজকে সহজ থেকে সহজতর করে তুলবে বলে আমরা আশাবাদী।

এসময় উপস্থিত সকলে তাদের ভূয়সী প্রশংসায় করোতালির মাধ্যমে শুভেচ্ছা জানায় এবং প্রজেক্ট বাস্তবায়নে সকল প্রকার সহযোগীতা করার আশ্বাস প্রদান করেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার।

এ প্রজেক্টের মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিচালকগণ যেভাবে সুবিধা পাচ্ছে:

একনজরে স্কুলের ছাত্র ছাত্রী, শিক্ষক এবং স্টাফদের উপস্থিতির তথ্য জানতে পারবে।

  • একনজরে স্কুলের ছাত্র ছাত্রী, শিক্ষক এবং স্টাফদের উপস্থিতির তথ্য জানতে পারবে।
  • মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের মাসিক বেতন, এক্সাম ফি এবং অন্যান্য ফি সংগ্রহ করতে পারবে।
  • নোটিশ বোর্ডে ফটো এবং ফাইল শেয়ার করতে পারবে।
  • ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষক এবং স্টাফদের ছুটির আবেদন অ্যাপসের মাধ্যমে খুব সহজে গ্রহণ করতে পারবে।
  • ছাত্র-ছাত্রীদের তথ্য থেকে তাদের আইডি কার্ড সংক্রিয়ভাবে তৈরি করতে পারবে।
  • অ্যাপসের মাধ্যমে ক্লাস রুটিন এবং এক্সাম রুটিন পাবলিশ করতে পারবে, যেটি সংক্রিয়ভাবে শিক্ষক ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবকদের প্যানেলে চলে যাবে।
  • এছাড়াও বিবৃতি গ্রন্থাগার পরিচালনা ইনভেন্টরি পরিচালনা ও ব্যবস্থাপনার সহ সব কিছুই করতে পারবেন মোবাইল ফোনের মাধ্যমে।

প্রতিষ্ঠান শিক্ষকগণ যেভাবে সুবিধা পাচ্ছে:

  • শিক্ষকরা তাদের প্রতিদিনের ক্লাস রুটিন এবং পরীক্ষার রুটিন দেখতে পারবে।
  • ক্লাসের গ্রুপে শিক্ষার্থীদের সাথে শিক্ষামূলক ছবি এবং ফাইল প্রদান করতে পারবে।
  • শিক্ষকগণ সরাসরি রেজাল্ট তৈরি করতে পারবেন।
  • শিক্ষকরা স্টুডেন্টদের ব্যাপারে অভিভাবকদের সাথে সরাসরি মেসেজ এর মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারবেন।

এছাড়াও শিক্ষার্থীদের অনলাইনে ভর্তি, পরীক্ষার সিট প্লান, ক্লাস ও পরীক্ষার রুটিন, অনলাইনে বই পড়ার সুবিধা, ক্লাস অনুযায়ী বইয়ের লিস্ট, অনলাইনে ফলাফল প্রকাশ সুবিধা পাবেন।

অভিভাবকগণ যেভাবে সুবিধা পাবেন:

  • নির্দিষ্ট সময়ে তাদের সন্তান ক্লাসে উপস্থিত থাকছে কিনা অথবা ক্লাসে উপস্থিত হওয়ার পর প্রতিটি ক্লাস করছে কিনা এর সব তথ্য তারা মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে দেখতে পারবেন।
  • তাদের সন্তানরা অনুপস্থিত থাকলে, অভিভাবকগণ সংক্রিয়ভাবে মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে তা জানতে পারবেন।
  • তাদের সন্তানদের ক্লাস টেস্ট এবং এক্সাম মার্কস তারা সরাসরি মোবাইল এসএমএসের মাধ্যমে পেয়ে যাবেন।
  • অভিভাবকগণ স্কুলের না গিয়েও মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে ফি পরিশোধ করতে পারবেন।
  • তারা তাদের সন্তানদের প্রতি দিনের ক্লাসের পড়া, ক্লাস রুটিন, ক্লাস টেস্ট নোটিশ বোর্ড ও একাডেমিক ক্যালেন্ডার এ সবকিছু মোবাইল অ্যাপসের মাধ্যমে দেখতে পারবেন।

এ বিষয়ে আরো জানতে সকলে ভিজিট করতে পারেবন www.edufleet.com.bd অথবা মতামত জানাতে পারবে: ইমেইল[email protected]retinasoft.com.bd হটলাইন– +8801877756677 ঠিকানা- হাউজ:০১, রোড: ০২, মেট্রো হাউজিং, মোহাম্মদপুর, ঢাকা-১২০৭

প্রসঙ্গগত, এর আগে ‘রেটিনা সফট’ টিম এ বিষয়ে সৌজন্য সাক্ষাত করেন চাঁদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আবদুল্লা আল মাহমুদ জামান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কানিজ ফাতেমা (পিএএ)’র সাথে। সাক্ষাতে তারা তাদের উদ্ভাবন ও দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে ঘিরে তাদের স্বপ্নের কথা উপস্থাপন করেন। এসময় তাদের স্বপ্ন সাফল্যমণ্ডিত করার লক্ষ্যে সাথে থাকবেন বলে ব্যক্ত করেছেন জেলার এ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা সহ চাঁদপুর জেলা প্রশাসন।

তাই তারা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে এক বার্তায় তাদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে জেলাবাসীর দোয়া, ভালোবাসা ও সহযোগিতা কামনা করেছেন।

Facebook Comments

Check Also

শাহরাস্তিতে বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা

মোঃ মাসুদ রানা, শাহরাস্তি : চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে স্কুল পর্যায়ে বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। …

vv