ব্রেকিং নিউজঃ
Home / আঞ্চলিক খবর / ছোট সাহতলীতে পোল্ট্রি ফার্মে দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি
ছোট সাহতলীর মেসার্স দেলোয়ার বয়লার হাইজের র্দুবৃত্তদের দেওয়া আগুনে পুড়ে মুরগির বাচ্চাসহ মালামালপুড়ে যাওয়ার দৃশ্য।

ছোট সাহতলীতে পোল্ট্রি ফার্মে দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি

সজীব খান : চাঁদপুর সদর উপজেলার শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নে ছোট সাহতলীর খাশের বাড়ির মেসার্স দেলোয়ার বয়লার হাউজে দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুন ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।

বুধবার দিবাগত রাত ১টার দিকে দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে ফার্মে থাকা মুরগির বাচ্চা, খাবার মালামালসহ আসভাবপত্র পুড়ে ছাই হয়েছে। এতে তার প্রায় ৩ লাখ টাকা ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছে। এ ঘটনায় চাঁদপুর মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়রি করার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, ছোট সাহতলীর সমাজ সেবক আবদুর রশিদ মাষ্টারের বাড়ি (খাশের বাড়ির) আবু হানিফের মেসার্স দেলোয়ার বয়লার হাউজের র্দুবৃত্তরা আগুন দেয়। র্দুবৃত্তদের দেওয়ার আগুনে মুরগির বাচ্চা ও বয়লার সেটের বিভিন্ন মালামাল পুড়ে যায়। কে বা কারা বুধবার দিবাগত রাতে এঘটনা ঘটিয়ে, এ নিয়ে এলাকার সর্বস্তরের মানুষের মাঝে নানাহ প্রশ্নঘুরপাক খাচ্ছে। তবে এ ঘটনাটি পূর্বশ্রক্রতার জেরধরে ঘটতে পারে বলে ক্ষতিগ্রস্ত আবু হানিফ জানিয়েছে। ব্যাংক ও বিভিন্ন এনজিও থেকে ঋননিয়ে মেসার্স দেলোয়ার বয়লার হাউজটি তিনি চালু করে। এখানে তিনিসহ ৪/৫জন শ্রমীক প্রতিনিয়ত কর্মকরেন। কিন্তু বুধবার রাতে র্দুবৃত্তদের দেওয়া আগুনে তার দীর্ঘদিনে স্বপ্ন আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে সকলেই এখন বেকারের তালিকায় পরিনত হওয়ার উপক্রম হয়েছে। বিভিন্ন সংস্থার ঋনের টাকা কিভাবে তিনি পরিশোধ করবে এ নিয়ে তিনি মারাত্মক ভাবে র্দুচিন্তায় পড়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত আবু হানিফ জানান, ধারধেনা করে মাত্র ২ দিন পূর্বে তার বয়লার সেটে আড়াই হাজার মুরগির বাচ্চা তোলেন সাথে ২০ বস্তা মুরগির খাবার ও উঠান। প্রতিদিনের ন্যায় মঙ্গলবার ও ফার্মের সকল কাজ শেষ করে ঘরে ফিরেন, রাত ১টার দিকে মুরগির বাচ্চাগুলো দেখার জন্য তিনি ফার্মে গিয়ে আগুনের লেলিহান দেখে ডাক চিৎকার শুরু করেন। তার ডাক চিৎকার শুনে আশপাশের লোক ছুটে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আনে, ততক্ষনে ফার্মের ভেতরে থাকা ২৫শত মুরগির বাচ্চা, খাবার ও সেটের বিভিন্ন স্থান পুড়ে যায়। এ ঘটনায় তিনি ব্যাপক হারে ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছেন।

তিনি জানান, ঘটনার পূর্বে র্দুবুত্তরা আগে বিদ্যুৎতের লাইন সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেন, পরে ফার্মে গিয়ে আগুন দিয়ে তারা চলে যান। আগুন নিয়ন্ত্রনের পর বিদ্যুৎতের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার দৃশ্য সকলে দেখতে পান। বিষয়টি চারদিকে জানা জানি হওয়ার পর বৃধবার সকালে খাশের বাড়িতে আশপাশের মানুষ ছুটে গিয়ে আবু হানিফকে শান্তা দেয়। ঘটনাটি শাহমাহমুদপুর ইউপি চেয়ারম্যান স্বপন মাহমুদ, ওয়ার্ড মেম্বার শফিক কারীকে অবগত করলে তারা ঘটনাস্থলে ছুটে এসে সরজমিনে বিষয়টি দেখন, সকলকে শান্তনা দেন।

Facebook Comments

Check Also

সাবেক চেয়ারম্যান খাজে আহমেদ ভূঁইয়ার মৃত্যুতে যুবলীগ নেতা রুবেলের শোক

নিজস্ব প্রতিনিধি : ফরিদগঞ্জের ১০ নং গোবিন্দপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আ’লীগের সদস্য খাজে …

vv