ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / চাঁদপুর রেলপথের মধুরোড স্টেশনে ব্যাক্তিস্বার্থে হচ্ছে রেল গেইট : কর্তৃপক্ষের ব্যার্থতা

চাঁদপুর রেলপথের মধুরোড স্টেশনে ব্যাক্তিস্বার্থে হচ্ছে রেল গেইট : কর্তৃপক্ষের ব্যার্থতা

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর-লাকসাম রেল পথের মধুরোড রেল স্টেশনটি জনগুরুত্বপূর্ণ একটি স্থান। এই স্টেশনটির পশ্চিম দিক দিয়ে প্রতিদিন রেল লাইন অতিক্রম করে চলাচল করছে শত শত ছোট বড় যানবাহন। আর এই ব্যাস্ততম সড়কে যানবাহন ও যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে নিয়োগ দেওয়া হয় ৩ জন গেট কিপার। তাদের থাকার জন্য করা হয় একটি ঘরও। কিন্তু এই ঘরটি করার জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ সীমানা নির্ধারন করেছে রেল লাইনের উত্তর পাশে।

যেখানটাতে রয়েছে রেলওয়ের অবৈধ কিছু স্থাপনা। এই স্থাপনা গুলোর মালিক পক্ষকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তাদের স্থাপনা ভেঙ্গে ফেলার জন্য বলা হলেও কোন কাজ হয়নি সেই বলাতে। পরবর্তীতে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তারা নাকি অর্থের বিনিময়ে রেল কর্তৃপক্ষের সাথে একটি সমাধানে এসে রেল কর্তৃপক্ষ নতুন করে স্থান নির্ধারন করেছে রেল লাইনের দক্ষিণ পাশে। সেখানে রয়েছে জাকির হোসেনের অবৈধ একটি স্থাপনা। সেই স্থাপনাটি ভেঙ্গে করা হয় গেট কিপারদের থাকার কক্ষ।

স্থানীয় কয়েকজনের ধারনা, জাকির হোসেন আর্থিক অসচ্ছলতার কারনে রেল কর্তৃপক্ষকে কোন আর্থিক সহযোগীতা না করতে পারায় তার দোকানটি ভেঙ্গে ফেলতে বাধ্য হয়েছে। অথচ এই অসহায় লোকটি এই দোকানের উপর নির্ভর করে চলছিল তার ৫ সদস্যের পরিবারটি। এ নিয়ে পরিবারের কথা চিন্তা করে জাকির হোসেন মানসিক চিন্তাও ভোগ করতে থাকেন। এ বছরের গত ১৮ জানুয়ারী হৃদক্রিয়া বন্ধ হয়ে তিনি মৃত্যুবরন করেন। অথচ অপর প্রান্তের অবৈধ স্থাপনাগুলোর মালিক পক্ষের বেশ কয়েকটি স্থাপনা রয়েছে রেল সম্পত্তির উপর। আর্থিকভাবেও বেশ স্বাবলম্বী তারা।

গত কয়েকমাস আগে যানবাহন ও যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা ভেবে অরক্ষিত এ স্থানটিতে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ রেল গেট স্থাপনের জন্য আনা হয় কিছু সরঞ্জাম। আর এ জন্য রেল লাইনের উত্তর ও দক্ষিণ পাশে সিএন্ডবি রাস্তার পশ্চিম পাশে বসানো হবে রেল গেইটের মূল পিলার। কিন্তু তাতেও বাঁধা সৃষ্টি করে ঐ মালিক পক্ষ। কারন তাদের স্থাপনার দু’ একটি কক্ষ ভেঙ্গে ফেলতে হবে।

এমনকি ভেঙ্গে ফেলার জন্যও একাধিকবার বলা হয়েছে তাদেরকে। তারা কোন কর্ণপাত না করে আবারও রেল কর্তৃপক্ষের সাথে সমযোতায় আসেন। এছাড়াও স্থানীয় কয়েকজনের অনুরোধে এক পর্যায়ে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ কোন উপায় না পেয়ে ব্যাক্তিস্বার্থের কথা চিন্তা করে রেল লাইনের উত্তর পাশের পিলারটি বসানো হচ্ছে সিএন্ডবি রাস্তার পূর্ব পাশে। আর দক্ষিণ পাশের পিলারটি হচ্ছে পশ্চিম পাশে। অথচ দুইটি পিলারই এক পাশে বসানোর কথা ছিলো।

এ নিয়ে রেলওয়ের একজন কর্মকর্তা তাদের অপারগতা প্রকাশ করেছেন। নিজেদের ব্যার্থতার কথা স্বীকার করে এ প্রতিবেদককে অবৈধ স্থাপনাগুলো ভেঙ্গে দিয়ে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে সহযোগীতা করার জন্য বলেন। সর্বশেষ গেইটের যে পাইপটি ৩০ ফুট লম্বা থাকার কথা থাকলেও ঐ স্থাপনা রক্ষা করতে গিয়ে পাইপের কয়েক ফুট কেটে ফেলার অভিযোগ শুনা যাচ্ছে রেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

মধুরোড স্টেশনে রেল লাইনের দুই পাশে অবস্থিত ৬টি দোকানের মালিক মোঃ মুকবুল হাজীর ছেলে মোঃ বাবলু জানান, আমাদের দোকানের লাইসেন্স আছে। প্রতি বছর বছর রেলওয়ের ট্যাক্স পরিশোধ করে আসছি। তাই রেল কর্তৃপক্ষ স্থাপনাগুলো ভাঙ্গার কোন সুযোগ থাকছে না।

এ বিষয়ে চাঁদপুর আইডব্লিও বিভাগের কর্মকর্তা মোঃ আজাদ বলেন, বর্তমানে আমাদের ১৩২টি গেইটের কাজ চলমান। তারমধ্যে মধুরোড স্টেশনের রেল গেইটটি লাইনের ১০ফুট দূরত্বে যেখানে করার কথা ছিল সেখানের স্থাপনা সরানোর জন্য মালিকপক্ষকে কয়েকবার অনুরোধ করার পরও সরাচ্ছে না। তারপরও অন্তত একটি কক্ষের ৫ ফুট ভেঙ্গে দিলে আমরা গেইটের মূল পিলারটি বসাতে পারতাম, তাও দিচ্ছে না।

কোন উপায় না পেয়ে রেলের অরক্ষিত এ স্থানে গেইট স্থাপন করা জরুরী হওয়ায় অপর পাশে (সিএন্ডবি রাস্তার পূর্বে) বসাতে হচ্ছে। তিনি বলেন, এ স্টেশনে আমার জানা মতে রেলের দুই পাশে ৭৮ ফুটের মধ্যে দুই একটি ব্যতীত আর কোন স্থাপনার লাইসেন্স নাই। এগুলোর লাইসেন্স চাইতে গেলে বলে তাদের নাকি লাইসেন্স করা আছে তাও অন্যত্র। তবে আমরা খুব সহসাই কানুনগো’র সাথে কথা বলে রেলওয়ের সীমানা মেপে অবৈধ স্থাপনাগুলো উচ্ছেদের অভিযান চালানো হবে।

আর এমন যদি হয় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের ব্যার্থতা, তাহলে এ দেশের সঠিক ব্যবস্থাপনা হয়ে যাবে অব্যবস্থাপনার পূর্ণরূপ। বাস্তবায়ন হবেনা জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা। তাই সঠিক নিয়মে রেলওয়ের কাজগুলো পরিচালনা করার জন্য রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন এলাকার সচেতন মহল।

Facebook Comments

Check Also

কুমিল্লায় মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় কচুয়া পুলিশের এএসআই নিহত

মো. মেহেদী হাসান, কচুয়া : কুমিল্লায় সড়ক দুর্ঘটনায় চাঁদপুরের কচুয়া থানার সহকারী পুলিশ উপ-পরিদর্শক (এএসআই) …

vv