ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / চাঁদপুর পুরান বাজারের সংঘর্ষে শামীম হত্যায় ২৫৯ জনের নামে মামলা

চাঁদপুর পুরান বাজারের সংঘর্ষে শামীম হত্যায় ২৫৯ জনের নামে মামলা

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর পুরান বাজারে মাদকের টাকা ভাগ বাটোয়ারা ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনায় পথচারী শামিম গাজীকে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় শামীম এর বাবা তাজু সরদার বাদী হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ ও আড়াইশো জনকে অজ্ঞাত আসামি করে চাঁদপুর মডেল থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং ৩। তারিখ, ১/৭/২০২০।

শামীম হত্যার ঘটনার পরে এর সাথে জড়িত আসামিরা এলাকা ছেড়ে গা-ঢাকা দিয়েছে এবং ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বেশ কিছুদিন যাবৎ চাঁদপুর পুরান বাজার ১ নং ও ২ নং ওয়ার্ডের মাদক ব্যবসায়ীরা মাদক বিক্রির ঘটনা নিয়ে ও আদিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পুরান বাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মাসুদ হোসেন অদক্ষতার পরিচয় দেওয়ায় ও পুরান বাজারকে নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হওয়ার কারণে তিনি যোগদানের পর থেকেই একের পর এক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে যাচ্ছে। বেশ কয়েক বছর পুরান বাজারে এই ধরনের হত্যাকাণ্ড না ঘটলেও এবছর মাদকের ঘটনা নিয়ে সংঘর্ষে নির্মমভাবে প্রাণ হারাতে হলো হোটেল গ্রান্ড হিলশার রিসিপশনের দায়িত্বে থাকা শামীমকে।

সোমবার রাতে পাশ্ববর্তি এলাকায় মাদক বিক্রি কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে পথচারী শামীম গাজী কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। মঙ্গলবার সকাল সাতটায় ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শামীমের কবে মৃত্যু হয়।

শামীম এর পিতা তাজু সরদার জানায়, প্রতিদিনের ন্যায় তার ছেলে সকালবেলা দুপুরের খাবার হাতে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে কর্মস্থল হোটেল গ্রান্ড হিলশায় যায়। সে ওই হোটেলে রিসিপশনে দায়িত্ব ছিল। রাতে বাড়ি ফেরার পথে সংঘর্ষের মাঝে পড়ে যায়। অন্ধকারে কোন এক পক্ষ তাকে বেদম পিটিয়ে আহত করে। সেখান থেকে স্বামীকে উদ্ধার করে প্রথমে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় ঢাকা মেডিকেলে রেফার করা হয়। রাতভর মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে সকাল ৭টায় মৃত্যুবরণ করে শামীম গাজী।

পরিবার সূত্রে জানা যায় মাত্র দুই বছর আগে প্রেম করে বিয়ে হয় শামীম। সে অত্যন্ত ভদ্র নম্র হিসেবে এলাকায় পরিচিত ছিল।

হোটেল গ্রান্ড হিলশার স্বত্বাধিকারী মোরশেদ আলম জানান, এই হোটেলের সবচেয়ে নম্র ভদ্র এবং দায়িত্বশীল শামীম গাজী। প্রতিদিনের মতো রোববার সকালে ডিউটিতে আসে এবং রাতে সাড়ে আটটার দিকে ছুটি নিয়ে বাড়িতে যায়। যারা এই নিষ্পাপ ছেলেটিকে হত্যা করেছে আমি তাদের বিচার দাবি করছি।

মাদক নির্মূল এবং সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রশাসনের সাঁড়াশি অভিযান এবং নিহত শামীম গাজী দোষীদের শাস্তি দাবি করেন এলাকাবাসী।

Facebook Comments

Check Also

শাহরাস্তিতে শিশু আনিসার দাদীর সঙ্গে গিয়ে দাদার মাছের খামারে মৃত্যু

মোঃ মাসুদ রানা : চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে শিশু আনিসা আক্তার নামে ১৮ মাসের এক শিশু দাদীর …

vv