ব্রেকিং নিউজঃ
Home / ইলিশের বাড়ি চাঁদপুর / চাঁদপুরে ১৯৬ পূজা মন্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসবের কাল মহাষ্টমী
প্রতীকী ছবি

চাঁদপুরে ১৯৬ পূজা মন্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসবের কাল মহাষ্টমী

অমরেশ দত্ত জয় : চাঁদপুরে অাজ ১৭ অক্টোবর মহাষ্টমী পূজোর মধ্য দিয়ে বিপুল উৎসাহ উদ্দিপনায় পালিত হবে সনাতন ধর্মালম্বিদের মূল পর্বের শারদীয় দূর্গোৎসব। এই দিনে সকালে নানা অায়োজনে অঞ্জলী গ্রহনের জন্য সনাতন ধর্মালম্বিরা ভীড় জমায়। এছাড়াও অাজ অষ্টমী ও কাল নবমীতেই পূজো দেখতে মন্ডপে সবচেয়ে বেশি সনাতন ধর্মালম্বিরা ভীড় জমায়। তবে স্থানীয় এমপি ও প্রশাসনের বিভিন্ন নেতাকর্মীরা অারো অাগে থেকেই পূজো মন্ডপগুলো পরিদর্শন করতে শুরু করে দিয়েছেন।
প্রতিবারই সবচেয়ে ভালো অায়োজকদের জেলা প্রশাসন থেকে পুরষ্কৃত করা হয়। এবার পূজা উপলক্ষে চাঁদপুরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা যথেষ্ট জোরদার করা হয়েছে। এর অাগে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন,পৌরসভা ও মডেল থানা থেকে পৃথক পৃথক ভাবে পূজা সুন্দর ভাবে উদযাপন উপলক্ষে জেলার সনাতনধর্মলম্বি নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করা হয়েছে। এবার মা দুর্গা এসেছেন ঘোটকে (ঘোড়া) চড়ে এবং যাবেন দোলায় (পালকি) চড়ে। জেলা পূজা উদযাপন কমিটির তথ্য মতে, এবছর জেলায় ১৯৬টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।
এর মধ্যে চাঁদপুর সদরে ৪১ টি,ফরিদগঞ্জে ১৮ টি,মতলব(দঃ) ৩৩ টি,মতলব (উঃ) ২৯ টি,হাজিগঞ্জে ২৬ টি,শাহারাস্তিতে ১৫ টি,হাইমচরে ৫ টি মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে।পূজাকে ঘিরে ইতোমধ্যে দেবী দুর্গাকে বরণ করে নিতে ব্যাপক প্রস্তুতি শেষ করেছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। তাছাড়াও চাঁদপুরে সনাতন ধর্মালম্বিদের সার্বজনিন শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে প্রতিমা শিল্পীরাও যথেষ্ট  ব্যস্ত সময় পার করেছেন।কারন সব সময় অত্যান্ত উৎসবমুখর পরিবেশে বিপুুুল ভক্ত সমাগমের উপস্থিতিতে চাঁদপুরে এই পূজা পালিত হয়। শান্তির শহর চাঁদপুরে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে  মণ্ডপগুলোতে প্রতিমার পাশাপাশি পূজা মল্ডপগুলো সাজানো হয়েছে নিত্য নতুন ডিজাইনে এবং ব্যবহার করা হয়েছে ডিজিটাল লেজার লাইটিং ও অত্যাধুনিক সাউন্ড সিস্টেম। অার সুন্দর সুন্দর প্রতিমাগুলো তৈরি হয়েছে মূলত মাটি, বাঁশ-খড়, দড়ি, লোহা, ধানের কুঁড়া, পাট, কাঠ, রঙ, বিভিন্ন রঙের শিট ও শাড়ি-কাপড়ের সাজ সজ্জা দিয়ে।
চাঁদপুুুর জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি সুভাষ রায় জানান, অতীতের চেয়ে এবার নিরাপত্তার ব্যবস্থা অনেক জোড়দার ও ভালো অবস্থানে রয়েছে।
এছাড়াও দুর্গাপূজা উপলক্ষে স্থানীয় প্রশাসন যথেষ্ট নিরাপত্তা দিচ্ছে।জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডঃ বিনয় ভূষণ মজুমদার জানান, প্রতি বছরের মতো এবারও এ উৎসবটি জাঁকজমক ভাবে উদযাপন করা হচ্ছে। গত বারের চেয়ে এবার মন্দিরের সংখ্যাও বেশি। তাই পূজোর অানন্দটাও বেশি হবে বলে আশা করছি।
এছাড়াও ইতোমধ্যে প্রশাসনের সাথেও কয়েকবার বৈঠক হয়েছে। পূজা নির্বিঘ্নে করতে প্রশাসন,জনপ্রতিনিধি সহ সর্বস্তরের মানুষ থেকে আমরা সার্বিক সহযোগিতা পাবার আশ্বাস পেয়েছি।এ ব্যাপারে চাঁদপুর পৌর মেয়র আলহাজ্ব নাছির উদ্দিন অাহমেদ বলেন, হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দূর্গা পুজা। পূজাকে সার্বজনিন করতে চাঁদপুর পৌরসভার পক্ষ থেকে সকল প্রকার প্রদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।
বিজয়া দশমীর দিন নদী ঘাটের সামনে দশমী মঞ্চ তৈরী করা হবে।চাঁদপুর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মণ্ডপে থাকবে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এদিকে সৌন্দর্য ও সফলতা ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার রয়েছে জানিয়ে পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির পিপিএম জানান,অামরা এবার পুরো জেলায় নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দিয়েছি।পুলিশের পক্ষ থেকে অামরা যেকোন অপ্রতিকর ঘটনা এড়াতে প্রতিনিয়ত ট্রহল ও মন্ডপ পরিদর্শন করার জন্য বিশেষ কয়েকটি টিম তৈরি করেছি। পূজা অামরা সুন্দরভাবে উন্মুক্তভাবে করতে দিতে সর্বোচ্চ কঠোর অবস্থানে রয়েছি।
Facebook Comments

Check Also

ছবি তুলে জিতে নিন পুরস্কার

‘আমাদের প্রিয় চাঁদপুর ডটকম’ প্রকাশ করতে যাচ্ছে ‘১২ মাসের ডেস্ক ক্যালেন্ডার’। যেখানে প্রতিটি মাসের স্থানে …

vv