ব্রেকিং নিউজঃ
Home / ধর্ম / চাঁদপুরে সরস্বতী পূজোয় মন্দিরগুলোর নানা সাজসজ্জা

চাঁদপুরে সরস্বতী পূজোয় মন্দিরগুলোর নানা সাজসজ্জা

অমরেশ দত্ত জয় : চাঁদপুরের পূজা মন্ডপগুলো সরস্বতী পূজো উপলক্ষে নানা সাজ-সজ্জায় সাজানো হয়েছে।

২৮ জানুয়ারি মঙ্গলবার শহরে সরজমিনে ঘুরে এসব দৃশ্য দেখা যায়।জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অজিত সাহা জানান,২৯ ও ৩০শে জানুয়ারী সরস্বতী পুজা হবে। দেবী মায়ের আগমনী তে উৎসবের আমেজ ছরিয়ে পরেছে সারা চাঁদপুরে।

আর তুলির আঁচড়ে দেবী সরস্বতীর প্রতিমা ফুটিয়ে তুলতে গিয়ে নির্ঘুম রাত কাটিয়েছেন মৃৎ শিল্পীগন। মূলত দেবীর আগমনী বার্তাকে আরও উচ্ছ্বসিত করে তুলতেই শিল্পীগনের এই প্রয়াস। আমি সবাইকে জানাই সরস্বতী পূজোর প্রিতী ও শুভেচ্ছা।

জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি অ্যাড. বিনয় ভূষণ মজুমদার জানান, হিন্দু ধর্মে অন্যতম ধর্মীয় উৎসব বিদ্যার ও ললিতকলার অধিষ্ঠাত্রী দেবী সরস্বতী পূজা। তাই মর্ত্যের ভক্তকুল শ্বেতশুভ্র কল্যাণময়ী দেবী সরস্বতীর আবাহন করবে। ঢাক-ঢোল-কাঁসর,শঙ্খ ও উলুধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠবে চাঁদপুরের বিভিন্ন পূজামণ্ডপ। সবাইকে দেবী সরস্বতী মায়ের পূজোর অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. রনজিত রায় চৌধুরী বলেন,শাস্ত্রমতে প্রতি বছর মাঘ মাসের শুক্ল পক্ষের পঞ্চমী তিথিতে শ্বেতশুভ্র কল্যাণময়ী বিদ্যাদেবীর বন্দনা করা হয়। ঐশ্বর্যদায়িনী,বুদ্ধিদায়িনী, জ্ঞানদায়িনী, সিদ্ধিদায়িনী, মোক্ষদায়িনী এবং শক্তির আঁধার হিসেবে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা সরস্বতী দেবীর আরাধনা করেন।

জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি তপন সরকার বলেন,পূজা উপলক্ষে মন্ডপগুলোতে রয়েছে পুষ্পাঞ্জলি,প্রসাদ বিতরণ,সন্ধ্যায় আরতি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।মূলত সরস্বতী পূজা বিদ্যা ও সঙ্গীতের দেবী সরস্বতীর আরাধনাকে কেন্দ্র করেই অন্যতম প্রধান উৎসব। শাস্ত্রীয় বিধান অনুসারে মাঘ মাসের শুক্লা পঞ্চমী তিথিতে সরস্বতী পূজা আয়োজিত হয়।

তিথিটি শ্রীপঞ্চমী বা বসন্ত পঞ্চমী নামেও পরিচিত। চাঁদপুর হরিজন সমাজ উন্নয়ন সংস্থার উপদেষ্টা অমরেশ দত্ত জয় বলেন,শ্রী পঞ্চমীর দিন অতি প্রত্যুষে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান,ছাত্র-ছাত্রীদের গৃহ ও সর্বজনীন পূজামণ্ডপে দেবী সরস্বতীর পূজা করা হয়।ধর্মপ্রাণ হিন্দু পরিবারে এই দিন শিশুদের হাতেখড়ি,ব্রাহ্মণভোজন ও পিতৃতর্পণের প্রথাও প্রচলিত। পূজার দিন সন্ধ্যায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সর্বজনীন পূজামণ্ডপগুলিতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও আয়োজিত হয়। পূজার পরের দিনটি শীতলষষ্ঠী নামে পরিচিত।কোনো কোনো হিন্দু পরিবারে সরস্বতী পূজার পরদিন অরন্ধন পালনের প্রথাও রয়েছে বলেও জানি। সবাইকে দেবী সরস্বতী মায়ের পূজোর শুভেচ্ছা।

চাঁদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর সার্কেল) জাহেদ পারভেজ চৌধুরী জানান, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশের অন্যতম জেলা হচ্ছে চাঁদপুর। আমি যতটুকু জানি জ্ঞান,সংগীত ও শিল্পকলার দেবী হিসেবেই সনাতনধর্মালম্বী ভাইবোনেরা ধর্মীয় রিতীনিতী অনুযায়ী সরস্বতী পূজো পালন করে। তাই সরস্বতী পূজো পালনে তাদের কোন বাঁধা নেই।তবে যেকোন অপ্রতিকর ঘটনা এড়াতে তৎপর রয়েছে পুলিশ।

Facebook Comments

Check Also

কচুয়ায় হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতা

মোঃ রাছেল, কচুয়া প্রতিনিধি : হুফফাজুল কুরআন ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ কচুয়া উপজেলা শাখার উদ্যোগে গত শুক্রবার …

vv