ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / চাঁদপুরে যৌতুকের জন্য বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে স্ত্রীকে হত্যা, স্বামী আটক

চাঁদপুরে যৌতুকের জন্য বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে স্ত্রীকে হত্যা, স্বামী আটক

নিজস্ব প্রতিনিধি : চাঁদপুরে যৌতুকের জন্য স্বামী বাঁশ দিয়ে মাথায় ও শরীরে বেদমভাবে পিটিয়ে স্ত্রী কাঞ্চন মালা (২৮) কে হত্যা করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘটনাটি গত রোববার দুপুরে শরিয়তপুর জেলার সখিপুরে কাঞ্চন মালার শ্বশুড় বাড়িতে মারধরের ঘটনাটি ঘটে। পরে সোমবার ৭ জুন রাতে উন্নত চিকিৎসার জন্য চাঁদপুর থেকে ঢাকা নিয়ে যাওয়ার পথে কাঞ্চন মালা নারায়নগঞ্জ মুগড়াপাড়া এলাকায় মারা যায়। তিন সন্তানের জননী স্ত্রী কাঞ্চন মালাকে হারিয়ে তার তিন শিশু আর্তনাদ করে তাদের মা’কে খুজছে।

এ ঘটনায় নিহতের পরিবার মঙ্গলবার (৮ জুন) বিকেলে চাঁদপুর সদর মডেল থানায় একটি হত্যার অভিযোগ করেছে। এ ঘটনার পর তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো: শাহজাহান অভিযুক্ত গৃহবধূর স্বামী কৃষক রাজা মিয়া বেপারীকে পালিয়ে যাওয়া সময় নারায়নগঞ্জ সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকার মুগড়াপাড়া থেকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সহায়তায় আটক করা হয়।

ঘটনার বিবরনে জানা যায়, দীর্ঘ ৭ বছর পূর্বে শরিয়তপুর জেলার সখিপুরের রাজা মিয়ার সাথে চাঁদপুর সদর উপজেলার রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের কাঞ্চন মালার বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের সংসারে এক এক করে তিন সন্তানের জন্ম হয়েছে। রাজা মিয়ার প্রথম সন্তান মো: খলিলুর রহমান বেপারী ৫ বছর, কন্যা সন্তান সুফিয়া বেগম ৩ বছর ও মো: জাহিদ বেপারী ৬ মাস বয়স।

নিহত গৃহবধূর ভাই মো: শাকিল জানান, বিয়ের পর থেকে রাজা মিয়া কয়েকমাস পরপর যৌতুক দাবী করেন। অনেকবার তাকে যৌতুক দেওয়া হয়। যৌতুন না পেলে সে কাঞ্চন মালাকে নির্যাতন করতো। আমার বোন কে রোববার ও সোমবার দুপুর পর্যন্ত কোন চিকিৎসা না করে শ্বশুড় বাড়িতে ফেলে রাখা হয়। পার্শ্ববর্তীরা জানিয়েছেন আমার ববোন কে বাঁশ দিয়ে পেটানো হয়েছে।

পরবর্তীতে আমরা খবর পেয়ে বোন ও তার স্বামীসহ ট্রলার যোগে চাঁদপুর এনে সোমবার বিকেলে চাঁদপুর শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কের মা ও শিশু হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের চিকিৎসক বোনের অবস্থার অবনতি দেখে তাকে সোমবার বিকেলে ঢাকা মেডিকেলে রেফার করে। চাঁদপুর থেকে ঢাকা নেওয়ার পথে রাত ৮টায় গৃহবধূ কাঞ্চন মালা নারায়নগঞ্জ মুগড়াপাড়া এলাকা যাওয়ার পর সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে মারা যায়।

পরে গৃহবধূর লাশ রাত ২টায় চাঁদপুরে নিয়ে আসা হয়। এ ঘটনার পর গৃহবধূর স্বামী ঘটনাাস্থল থেকে পালিয়ে যায়।

চাঁদপুর সদর মডেল থানায় গৃহবধূর পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দেওয়ার পর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো: শাহজাহান বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহন করে গৃহবধূর স্বামী রাজা মিয়া বেপারীকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সহায়তায় আটক করে চাঁদপুর নিয়ে আসার ব্যবস্থা করেছেন।

তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো: শাহজাহান জানায়, অভিযোগের ভিত্তিতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের সহায়তায় গৃহবধূর স্বামী রাজা মিয়া বেপারীকে আটক করে চাঁদপুর নিয়ে আসা হয়। পরে বুধবার বিকেলে তাকে সখিপুর থানা পুলিশের কাছে রাজা মিয়া কে হস্তান্তর করা হয়। তবে ময়নাতদন্ত শেষে লাশটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

Facebook Comments

Check Also

চাঁদপুর কণ্ঠের ২৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপন

নিজস্ব প্রতিনিধি : ‘বস্তুনিষ্ঠতাই আমাদের মূলনীতি, পাঠকপ্রিয়তাই আমাদের মূলধন’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে ২৭ বছর আগে …

Shares
vv