ব্রেকিং নিউজঃ
Home / দেশজুড়ে / চাঁদপুরে ট্যাংক লরি থেকে চোরাই তেল বিক্রী থামছে না…

চাঁদপুরে ট্যাংক লরি থেকে চোরাই তেল বিক্রী থামছে না…

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুরে ট্যাংক লরি থেকে প্রকাশ্যে দিনে দুপুরে রাস্তার পাশে থাকা তেলের দোকানগুলোতে চোরাই ভাবে তেল বিক্রি করছে। চাঁদপুরে সবকটি তেলের ডিপো থেকে এসব ট্যাংক লরি দিয়ে তেল এনে গন্তব্য স্থানে নেওয়ার পথে প্রতিদিন চোরাই ভাবে লক্ষ লক্ষ টাকার তেল বিক্রি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

চাঁদপুর-রায়পুর সড়কের বাগাদী চৌরাস্তা এলাকায় রাস্তার পাশে ব্লেকার খোরশেদ গাজীর খোলা তেলের দোকানে প্রতিদিন ট্যাঙ্কলরি থেকে অবৈধভাবে তেল নামিয়ে রাখতে দেখা যায়। অবৈধ পন্থায় তেল ক্রয় করে খোরশেদ আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়ে গেছেন।

রায়পুর লক্ষ্মীপুর গামী সবকটি ট্যাঙ্কলরি গাড়ি থেকে সে প্রতিদিন অল্প দামে ডিজেল, অকটেন ও পেট্রোল ক্রয় করছে। এতে করে বঞ্চিত ও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে পাম্প মালিকরা। এছাড়া চাঁদপুরের কয়েকটি তেলের ডিপোর ম্যানেজার গোপনে এসকল চালকদের মাধ্যমে চোরাই তেল এভাবে অন্যত্র বিক্রি করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নতুন বাজার যমুনা তেলের ডিপো থেকে চোরাই ভাবে তেল বিক্রির ঘটনায় ডিপো ম্যানেজারকে আটক করেছে পুলিশ। সে এসকল ট্যাঙ্কলরির মাধ্যমে ফরিদগঞ্জ রায়পুর, লক্ষ্মীপুর পাচার করেছে। দুদক এই ঘটনায় অনুসন্ধান করে তথ্য প্রমাণ পেয়ে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

কিছুদিন এইসব চুরি বন্ধ থাকলেও আবারো রাস্তার পাশে থাকা খোলা দোকান গুলোতে প্রকাশ্যে ট্যাঙ্কলরি থেকে চোরাই ভাবে তেল বিক্রি করার দৃশ্য চোখে পড়ে।

মঙ্গলবার বিকেলে চাঁদপুর নতুন বাজার যমুনা তেলের ডিপো থেকে লক্ষ্মীপুর ঢ-০৮০০০২ নাম্বারের একটি ট্যাঙ্কলরি ডিজেল বোঝাই করে। গাড়ির চালক সালাউদ্দিন ও হেলপার করিম গাড়িটি নিয়ে বাগাদী চৌরাস্তা এলাকায় এসে গাড়িটি থামিয়ে তালের দোকানদার খোরশেদের কাছে প্রায় এক ব্যারেল ২৪০ লিটার ডিজেল বিক্রি করে।

এসময় সংবাদকর্মীরা ঘটনাটি দেখতে পেয়ে ভিডিও ধারণ করলে দূর থেকে দৌড়ে এসে চালক সালাউদ্দিন ছবি তুলতে বাধা প্রদান করে। ঘটনাটি গোলাটে দেখে দ্রুত চালক তার গাড়ি নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়।

রাস্তায় গাড়ি থামিয়ে তেল চুরির ঘটনা জানতে চাইলে চালক সালাউদ্দিন জানায়, টাকার প্রয়োজনে গাড়ি থেকে তেল বিক্রি করেছি তাতে কার কি। সবাই যেভাবে তেল বিক্রি করে সেভাবেই করি।টাকার দরকার হলে তেল বিক্রি করি সমস্যা কোথায়।

এদিকে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, প্রতিদিন দিনে দুপুরে প্রকাশ্য দিবালোকে খোরশেদ গাজী গাড়ি থেকে তেল নামিয়ে নিচ্ছে। সে চোরাই তেল কিনে লক্ষ লক্ষ টাকার মালিক হয়েছেন। এছাড়া তার মত চাঁদপুর-কুমিল্লা মহাসড়কের কুমড়া ডুগি এলাকায় আরেক তেলের দোকানদার এভাবে তেল চুরি করছে।

তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসন আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করলেই এই তেল চুরি বন্ধ করা সম্ভব হবে। এই ঘটনায় সংশ্লিষ্ট প্রশাসন নীরব ভূমিকা পালন করার কারণে জনমনে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

Facebook Comments

Check Also

চাঁদপুর ষোলঘর পাকা মসজিদ শেখ বাড়িতে চলাচলের যায়গা দখলের পায়তারা

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুর শহরের ১৩নং ওয়ার্ড দক্ষিণ তরপুরচন্ডী এলাকায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে যাতায়াতের পথ …

vv