ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / চাঁদপুরে আরো ১৩৯ জনের করোনা শনাক্ত : সংক্রমণ ঝুঁকিতে চাঁদপুর সদর ও ফরিদগঞ্জ

চাঁদপুরে আরো ১৩৯ জনের করোনা শনাক্ত : সংক্রমণ ঝুঁকিতে চাঁদপুর সদর ও ফরিদগঞ্জ

মাসুদ হোসেন : দেশে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকিপূর্ণ তালিকায় রয়েছে চাঁদপুর জেলাও। এ জেলায় যেমন দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে করোনা আক্রান্ত রোগী। তেমনি বাড়ছে প্রাণহানির সংখ্যাও। জেলার আট উপজেলাই ক্রমান্বয়ে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা।

বুধবার চাঁদপুরে একদিনে নতুন করে আরো ১৩৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। সনাক্তের হার ৪৬.৪৯%।

বুধবার (১৪ জুলাই) ভাষা বীর এম.এ ওয়াদুদ আরটি-পিসিআর ল্যাবে ১৮৮ নমুনা পরীক্ষা করে ৯২ জনের করোনা পজিটিভ ও আরএটি ল্যাবে ১১১ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪৭ জনের পজেটিভ রিপোর্ট পাওয়া যায়। সবমিলিয়ে ২৯৯ নমুনার মধ্যে ১৩৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। বুধবার রাতে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।

আরটি-পিসিআর ল্যাবে শনাক্ত হওয়া ৯২ জনের উপজেলা ভিত্তিক পরিসংখ্যান হচ্ছে-চাঁদপুর সদর ৫০ জন, হাজীগঞ্জ ১৩ জন, ফরিদগঞ্জ ৫ জন, কচুয়ায় ১ জন, মতলব উত্তরে ২ জন, মতলব দক্ষিণ ১৯ জন, হাইমচরে ১ জন ও শরীয়তপুর সদর উপজেলার ১ জন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আরএটি ল্যাবে শনাক্ত হওয়া ৪৭ জনের উপজেলা ভিত্তিক তথ্য জানা যায়নি।

১৪ জুলাই পর্যন্ত জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৬৯৪ জন। এদের মধ্যে ১৩ জুলাই পর্যন্ত চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ২২৮ জন। সেই সাথে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে ১৩৫ জন। তবে করোনা সংক্রমণের শীর্ষ ঝুঁকিতে রয়েছে চাঁদপুর সদর উপজেলা। তারপরেই রয়েছে ফরিদগঞ্জ। জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার (১৪ জুলাই) পর্যন্ত চাঁদপুর সদর উপজেলায় শনাক্ত হয়েছেন ৩ হাজার ১২৮ জন। আর মৃত্যুবরণ করেছেন ৫২ জন। আক্রান্ত ও মৃতের বেশীরভাগই চাঁদপুর জেলা শহরের বাসিন্দা।

এদিকে আক্রান্ত আর মৃতের দিক থেকেও দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ফরিদগঞ্জ উপজেলা। এ উপজেলায় শনাক্ত হয়েছেন ৭১৮ জন। আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন ২৩ জন। অন্যান্য উপজেলার মধ্যে রয়েছে শাহরাস্তি, হাজীগঞ্জ, মতলব দক্ষিণ, মতলব উত্তর, হাইমচর ও কচুয়া উপজেলা। শাহরাস্তি উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬৬৫ জন ও মৃত ১০ জন, হাজীগঞ্জে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা রয়েছে ৬৭০ জন। আর মৃতের সংখ্যা ২১ জন।

মতলব দক্ষিণ উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫৮৬ জন ও মৃত ৭ জন, মতলব উত্তর উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩৪৯ জন ও মৃত ১২ জন, হাইমচর উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৯৮ জন ও মৃত ৩ জন এবং কচুয়া উপজেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ২৩৩ জন ও মৃত ৭ জন।

উল্লেখ্য, এদের সাথে বুধবার আরএটি ল্যাবে শনাক্ত হওয়া ৪৭ জন রোগীর সংখ্যা যুক্ত হবে।

Facebook Comments

Check Also

মৃত্যুর আগে সেলিম ফিরতে চান চাঁদপুরের আপনজনদের কাছে

নিজস্ব প্রতিনিধি : ৪০ বছর আগে যখন বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান সেলিম মিয়া, তখন সবেমাত্র ম্যাট্রিক …

Shares
vv