ব্রেকিং নিউজঃ
Home / সমস্যা-সম্ভাবনা / চাঁদপুরে আধুনিকায়ন হচ্ছে দু’হাজারোধিক ল্যান্ডফোন

চাঁদপুরে আধুনিকায়ন হচ্ছে দু’হাজারোধিক ল্যান্ডফোন

অমরেশ দত্ত জয় : চাঁদপুরে বিটিসিএল টেলিকমের সচল প্রায় ২ হাজারোধিক ল্যান্ডফোনকে আধুনিকায়ন করা হচ্ছে।ইতিমধ্যে মডারনিজেশন অফ টেলিকমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক(এমটিওএন) প্রকল্পে এই কাজ শুরু হয়েছে। যার মাধ্যমে বর্তমান সংযোগ থাকা কপার ক্যাবলের ল্যান্ডফোনগুলোকে অপটিক্যাল সংযোগে নেওয়া হবে। আর এতেই গ্রাহকরা বিটিসিএল টেলিকমে পাবে দ্রুত গতির সর্বোচ্চ ইন্টারনেট সেবা।
এক তথ্যে জানা যায়, বাংলাদেশ টেলি কমিনিউকেশন লিমিটেডের আওতায় চাঁদপুর জেলার চাঁদপুর সদরে ১ হাজার ৪’শ ৮৭ টি,মতলব দক্ষিণে ৮৪টি, মতলব উত্তরে ৪৪টি, নারায়নপুরে ২০টি, কচুয়ায় ১’শ ৬টি, সাচারে ০১টি, শাহারাস্থিতে ৭২টি, হাজীগঞ্জে ১’শ ১৮টি, হাইমচরে ৩৭টি, ফরিদগঞ্জে ৬২টি সহ মোট ২ হাজার ৩১টি ল্যান্ডফোন সচল রয়েছে। আর এই ল্যান্ডফোনগুলো ইতিমধ্যে এনালগ সিস্টেম হতে ডিজিটালাইজেশন পদ্ধতিতে গ্রাহক চাহিদা পূরণ করছে।
বিটিসিএল টেলিকম চাঁদপুর কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ল্যান্ডফোনের ডিমান্ড নোট করতে গ্রাহককে কিছুদিন আগেও দিতে হতো ৬’শ ৪৫ টাকা। যার মধ্যে ডিমান্ড নোটের দাম ৬’শ টাকা এবং এর ভ্যাট বাবদ ১৫% হারে গ্রাহককে বাকি ৪৫ টাকা দিতে হতো। কিন্তু সম্প্রতি সময়ে মুজিববর্ষ উপলক্ষে ল্যান্ডফোনের কানেকশন সম্পূর্ণ ফ্রি। এক্ষেত্রে ল্যান্ডফোনের কানেকশন ফি ৩’শ টাকা এবং এর ১৫% ভ্যাট ৪৫ টাকা সহ মোট ৩’শ ৪৫ টাকা গ্রাহককে এখন আর দিতে হচ্ছে না। তবে ল্যান্ডফোনের নতুন সংযোগ পেতে নিরাপত্তা জামানত বাবদ ৩’শ টাকা জমা দিতে হচ্ছে। এই বিশেষ অফারটি মুজিববর্ষ পর্যন্তই চলবে।
বিটিসিএল টেলিকম চাঁদপুর কার্যালয় সূত্রে এর কলরেট সম্পর্কে জানা যায়, বিটিসিএল টেলিকমে ল্যান্ডফোনে দিনরাত ২৪ ঘন্টা ননস্টপ কথা বলা যায়। এক্ষেত্রে মাস শেষে গ্রাহককে বিল দিতে হবে মাত্র ১’শ ৫০ টাকা। আর মোবাইলে কথা বললে মিনিট প্রতি ৫২ পয়সা হারে যেকোন নাম্বারে কথা বলা যাবে।
৭ জানুয়ারি মঙ্গলবার বিটিসিএল টেলিকম চাঁদপুরের সহকারী প্রকৌশলী আতাউর রহমান পাটোয়ারী সোহাগের সাথে ল্যান্ডফোন স্যালেন্ডারের ব্যপারে কথা হলে তিনি জানান, গ্রাহকের আবেদনের প্রেক্ষিতে ২০১৮ সালে ১’শ ৪টি টেলিফোন স্যালেন্ডার হয়েছে। আর নতুন সংযোগ চালু হয়েছে ৪৯টি। যারা ল্যান্ডফোন স্যালেন্ডার করেছেন তাদের প্রত্যেককে তাদের জামানতের টাকা ফেরত দেওয়া হয়েছে। তবে ২০১৯ সালের ল্যান্ডফোন স্যালেন্ডারের তথ্যটি এখনো আপডেট করা হয়নি।
এদিকে বিটিসিএল টেলিকমের আধুনিকায়নে এমটিওএন প্রকল্পের ব্যপারে তিনি জানান, আমরা আগে বিটিসিএল এ দেড় এমবিপিএইচ পর্যন্ত গ্রাহককে ইন্টারনেট সেবা দিতে পারতাম। বর্তমানে এমটিওএন প্রকল্পে জেলায় আধুনিক যন্ত্রপাতি বসানো হচ্ছে। এতে আমরা গ্রাহকদেরকে ২০ এমবিপিএস অর্থাৎ সর্বোচ্চ গতি সম্পন্ন ইন্টারনেট সুবিধা দিতে পারবো। তবে এই প্রকল্পের মোট ব্যায় ও কবে নাগাদ প্রকল্প শেষ হবে অর্থাৎ সময়সীমা সম্পর্কে তিনি এখনো জানেননা বলে মন্তব্য করেন।
Facebook Comments

Check Also

ফরিদগঞ্জে রাস্তা সংস্কারের নামে বরাদ্দের হদিছ নেই! বৃষ্টিতে চলাচলে দূর্ভোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : স্বাধীনতার প্রায় ৫০ বছর পার হতে চলেছে, দেশে একের পর এক সরকার পরিবর্তন …

vv