ব্রেকিং নিউজঃ
Home / বাংলাদেশ / রাজনীতি / চাঁদপুরে অধিকাংশ ইউনিয়নেই আ.লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ছাড়া চলছে কার্যক্রম

চাঁদপুরে অধিকাংশ ইউনিয়নেই আ.লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ছাড়া চলছে কার্যক্রম

মাসুদ হোসেন : চাঁদপুর সদর উপজেলার অধিকাংশ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের চলছে দুজন করে নেতার নেতৃত্বে। এই সংগঠনের উপজেলার ১৪টির মধ্যে ১১টি ইউনিয়নে নেই পূর্ণাঙ্গ কমিটি। ফলে করোনাভাইরাস সংকটে মাঠের কার্যক্রম বাস্তবায়ন ও সমন্বয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে সংগঠনটির শীর্ষ নেতাদের। কেউ কেউ বিগত কমিটি বা ওয়ার্ড কমিটির নেতাদের সমন্বয়ে দায়িত্ব পালনের চেষ্টা করলেও সাংগঠনিক পদপদবি না থাকায় তাদের পড়তে হচ্ছে নানা বিড়ম্বনায়। এতে সরকারী সহযোগিতা মানুষের কাছে পৌছে দিতে তৈরি হচ্ছে হ-য-ব-র-ল। এছাড়াও অনেক ইউনিয়নে সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের মনগড়া সিদ্ধান্তে পরিচালিত হচ্ছে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম।

সহযোগী সংগঠনের নেতাদের মতে, করোনাভাইরাস সংকটের এই সময়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি থাকলে ইউনিয়নগুলোতে তাদের কর্মসূচি আরও গতিশীল হতো। তবে আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের নেতারা বলছেন, এই মুহূর্তে কমিটি গঠনকে তারা ‘গুরুত্ব’ দিতে চান না। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কাজ করাই তাদের প্রধান দায়িত্ব। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের সম্মেলন হয়েছে প্রায় ৯ মাস আগে। কিন্তু এসব ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হলেও এখনো পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হয়নি। এ নিয়ে হতাশ হয়ে পড়েছেন তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা। উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের মধ্যে ১১টির সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলেও কল্যানপুর ইউনিয়ন, লক্ষ্মীপুর মডেল ইউনিয়ন ও রাজরাজেশ্বর ইউনিয়নের সম্মেলনের পূর্বে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ পূর্ণাঙ্গ কমিটির নাম ঘোষণা করা হয়।

দলীয় সূত্র জানায়, ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসের ৮ তারিখে ২নং আশিকাটি, ১৩ তারিখে ৭নং তরপুরচন্ডী, ১৮ তারিখে ১২নং চান্দ্রা, ১৯ তারিখে ১৩নং হানারচর, ২০ তারিখে ৫নং রামপুর, ২১ তারিখে ১১নং ইব্রাহিমপুর, ২২ তারিখে ৪নং শাহমাহমুদপুর, ২৬ তারিখে ১নং বিষ্ণুপুর, ২৭ তারিখে ৮নং বাগাদী, ডিসেম্বর মাসের ১ তারিখে ৯নং বালিয়া ও ৩ তারিখে ৬নং মৈশাদী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন-২০১৯ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সম্মেলনের পরবর্তী সময়ে গত বছরের ৭ ডিসেম্বর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নূরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলী আরশ্বাদ মিয়াজী স্বাক্ষরিত এক পত্রে বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে সভাপতি পদে মোঃ নাছির উদ্দিন খান শামীম এবং সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ সফিকুল ইসলাম ঢালী, শাহমাহমুদপুর ইউনিয়নে সভাপতি পদে ইঞ্জিনিয়ার আক্তারুজ্জামান পাটওয়ারী ও সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ কামাল হাজী, রামপুর ইউনিয়নে সভাপতি পদে মির্জা মোঃ সহিদুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক পদে আল-মামুন লিটু, মৈশাদী ইউনিয়নে সভাপতি পদে মোঃ লিটন সরকার এবং সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ শাহ্ আলম মিয়া, তরপুরচন্ডী ইউনিয়নে সভাপতি পদে ইমাম হাসান রাসেল গাজী ও সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ আঃ লতিফ বিশ্বাস, বাগাদী ইউনিয়নে সভাপতি পদে মোঃ নজরুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক পদে ইব্রাহিম খলিল (লিটন), বালিয়া ইউনিয়নে সভাপতি পদে মোঃ রফিকুল্যা পাটওয়ারী ও সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ হান্নান মিজি, ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নে সভাপতি পদে মোঃ কাশেম খান এবং সাধারণ সম্পাদক পদে আঃ মান্নান গাজী (মনা গাজী), চান্দ্রা ইউনিয়নে সভাপতি পদে খান জাহান আলী কালু পাটওয়ারী ও সাধারণ সম্পাদক পদে জসিম উদ্দিন মিয়াজী, হানারচর ইউনিয়নে সভাপতি পদে মোঃ আব্দুল ছাত্তার রাঢ়ী এবং সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ হাবিবুর রহমান (হাবু ছৈয়াল)কে আগামী ৩ বছরের জন্য দায়িত্ব প্রদানের ঘোষনা করা হয়। এর আগে ৮ নভেম্বর আশিকাটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনেই সভাপতি পদে আঃ রাজ্জাক ভুঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক পদে আলমগীর সরকারের নাম ঘোষনা করেন উপজেলা নেতৃবৃন্দ।

এদিকে পূর্ণাঙ্গ কমিটি বিহীন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম চলতে থাকলে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলের একক প্রার্থী ঘোষনা করতে পড়তে হবে ব্যাপক বিড়ম্বনায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ইউনিয়ন পর্যায়ের কয়েকজন নেতা জানান, আমার জানা মতে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ার পর সকল সাংগঠনিক কাজের সঙ্গে এই কাজও বন্ধ হয়ে গেছে। এই কঠিন সময়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি থাকলে সমস্যা হতো না। কিন্তু এখন তো কিছুই করার নেই। এই অবস্থা চলতে থাকলে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নে দলের একক প্রার্থী ঘোষণা নিয়ে বিপাকে পড়তে হবে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান শনিবার (২২ আগস্ট) জানান, মহামারী করোনাভাইরাসের কারনে দলীয় সকল কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। এই সময়টাতে মানুষের পাশে দাঁড়ানোই ছিল আমাদের প্রধান দায়িত্ব ও উদ্দেশ্য। তবে প্রতিটি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা আমাদের কাছে জমা আছে। যাচাই-বাছাই করে আগামী মাসে অর্থাৎ সেপ্টেম্বর মাসেই তা ঘোষনা করা হবে।

আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা এই করোনাভাইরাসের সংকট সময়ে বিগত দিনের কমিটির নেতাকর্মী কিংবা ওয়ার্ড কমিটির নেতৃবৃন্দ দিয়ে সাংগঠনিক কার্যক্রম চালিয়ে নিয়েছি। এই মাসটি শোকের মাস হওয়ায় আগামী মাসের মধ্যে উপজেলার বাকী সবগুলো ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির তালিকা প্রকাশ করবো।

তিনি আরো বলেন, আমাদের কাছে প্রাপ্ত তালিকা থেকে যাচাই-বাছাই করে বিগত দিনের আওয়ামীলীগের ত্যাগী কর্মীদের এই পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে বেশী প্রাধান্য দেয়া হবে।

Facebook Comments

Check Also

বাংলাদেশের উন্নয়নে রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নাই : শফিকুর রহমান এমপি

এস. এম ইকবাল : ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের উদ্যোগে বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২১ সেপ্টেম্বর …

vv