ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / চাঁদপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহারের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

চাঁদপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহারের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

♦♦প্রিয় চাঁদপুর রিপোর্ট♦♦ মাদকের ভয়াবহতা কমিয়ে আনতে ব্যাতিক্রমী এক উদ্যোগ গ্রহন করেছেন চাঁদপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার পিপিএম। তিনি গত দুই বছর জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে মাদক নিয়ন্ত্রণে কাজ করতে গিয়ে যেসব বিষয়গুলো উপলব্ধি করেছেন তারই আলোকে জেলার ৮৯ ইউনিয়নের প্রত্যেক ওয়ার্ডে স্কুল, কলেজ ও ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের নিয়ে ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছেন।

সোমবার (১০ জুলাই) দুপুর ১২টায় চাঁদপুর স্টেডিয়ামের ভিআইপি পেভলিয়ানে আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে নিজের অভিজ্ঞতা বর্ননা করতে গিয়ে সকলকে উল্লেখিত আয়োজনের কথা বলেন।

                                                                                        ফাইল ছবি

পুলিশ সুপার বলেন, ১৫-১৬ বছরের স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা বন্ধুদের সাথে মিশে মাদকে জড়িয়ে পড়েন। কারণ স্কুলের গন্ডি পেরিয়ে কলেজে আসলে তারা নিজেদেরকে অনেকটা স্বাধীন ভাবতে শুরু করেন। আর যে সব শিক্ষার্থী বিভিন্ন কারণে পড়া লেখা থেকে ঝরে পড়েন, তারা থাকেন অভিভাবকহীন। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে শ্রমিক হিসেবে তারা কাজ করেন। আর এ কারণে টুর্নামেন্টের প্রত্যেক দলে খেলেয়াড়দের মধ্যে স্কুল ও কলেজের খেলেয়াড় থাকবেন ৬জন এবং ঝরে পড়া শিক্ষার্থী থাকবেন ৫জন।

চাঁদপুর জেলা পুলিশ জঙ্গিবাদ, মাদক, বাল্য বিবাহ, ইভটিজিং ও সন্ত্রাস মুক্ত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। পাশাপাশি নারী ও শিশু নির্যাতন বিষয়ে আলাদা ভাবে নারী ও শিশু সহায়তা কেন্দ্রের মাধ্যমে কাজ করছেন। মাদকাসক্তদের আটক করলে অনেক সময় হিতে বিপরীত হয়। সে জন্য আমরা তাদেরকে এনে এখন কাউন্সিলিং করতে শুরু করেছি। সকলের সহযোগিতা থাকলে চাঁদপুর জেলাও মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত হবে বলেন এ পুলিশ সুপার।

সভায় সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সকার বিভাগ চাঁদপুর এর উপ-পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল হাই।

Facebook Comments

Check Also

ফরিদগঞ্জে ভাতিজার হাতে চাচী ধর্ষণ,  ধর্ষণের ভিডিও পাঠিয়ে টাকা দাবী

এস.এম ইকবাল: চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার চরদু:খিয়া পশ্চিম ইউনিয়নের বিষকাঁটালী গ্রামে ভাতিজা কর্তৃক চাচীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে করে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে, সেই ধর্ষণের ভিডিও মোবাইলে ধারন করে সৌদিপ্রবাসী স্বামীর কাছে পাঠিয়ে অর্থ দাবী করার অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করেছে ভূক্তভোগী। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত রিয়াদ নামে এক যুবককে আটক করে আদালতে প্রেরণ করেছে। থানায় দায়েরকৃত মামলা অনুযায়ী জানাযায়, ওই ইউনিয়নের চৌকিদার বাড়ির সৌদি আরব প্রবাসী মোস্তফা কামালের স্ত্রী শারমিন আক্তারকে একই বাড়ির শফিকুর রহমানের প্রবাস ফেরত ছেলে রিয়াদ হোসেন ভয়ভীতি দেখিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষন করে, অবৈধ শারিরিক সর্ম্পকের একটি ভিডিও মুঠো ফোনে ধারণ করে রিয়াদ নিজেই। পরে সে নিজেই শারমিনের স্বামীর কাছে সেই ভিডিও চিত্র ও ছবি পাঠিয়ে অর্থ দাবী করে। পরে শারমিন বাদী হয়ে ফরিদগঞ্জ থানায় সোমবার লিখিত অভিযোগ করেন। পুলিশ অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করে অভিযুক্ত রিয়াদকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করে। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই কাজী মো: জাকারিয়া জানান, মামলার অন্য আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষা ও আদালতে ২২ ধারায় জবানবন্দি নেয়া হয়েছে। Facebook Comments

vv