ব্রেকিং নিউজঃ
Home / বিনোদন / করোনায় হাজীগঞ্জের অভিনেতা সাদেক বাচ্চুর মৃত্যু

করোনায় হাজীগঞ্জের অভিনেতা সাদেক বাচ্চুর মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদপুরের হাজীগঞ্জের কৃতি সন্তান, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত শক্তিমান অভিনেতা সাদেক বাচ্চু করোনা যুদ্ধে হেরে গেছেন।

আজ সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকাল পৌনে ১১টার দিকে রাজধানীর মহাখালীর ইউনিভার্সাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

মাহবুব আহমেদ সাদেক ওরফে সাদেক বাচ্চু ১৯৫৫ সালের ১ জানুয়ারি ১৯৫৫ জন্মগ্রহণ করেন। একজন বাংলাদেশী চলচ্চিত্র অভিনেতা, নাটক রচয়িতা, নাট্য নির্দেশক ও ডাক বিভাগের একজন অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ছিলেন তিনি।

সাদেক বাচ্চু বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য পরিচিতি লাভ করলেও মঞ্চ, বেতার, টেলিভিশনে অভিনয় করেছেন। ১৯৮৫ সালে শহিদুল আমিন পরিচালিত রামের সুমতি-তে অভিনয়ের মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। সালে খলচরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।

মাহবুব আহমেদ সাদেক ওরফে সাদেক বাচ্চুর পৈত্রিক নিবাস চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলার ১০নং গন্ধর্ব্যপুর ইউনিয়নে। তবে তিনি ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা ছিলেন ডাক বিভাগের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা।

মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার তিন মাস পর তার বাবা মৃত্যুবরণ করেন। বাবার মৃত্যুর পর ১৫ বছর বয়সে ডাক বিভাগের চাকরিতে যোগদান করেন। চাকুরিরত অবস্থায় তিনি টিএন্ডটি কলেজ হতে স্নাতক সম্পন্ন করেন। ব্যাক্তিগত জীবনে তিনি শাহনাজ জাহানের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ। তিনি দুই কন্যা ও এক পুত্র সন্তানের জনক।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, হাজীগঞ্জের গন্ধর্ব্যপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের পশ্চিম দেশগাঁও আতাউদ্দিন সর্দার বাড়ির মৃত নূর মোহাম্মদের ছেলে সাদেক বাচ্চু। ৬ বোনের এক ভাই ছিলেন সাদেক বাচ্চু। গ্রামের বাড়িতে কবরের জমি ছাড়া তেমন কোন সম্পদ নেই তার। তবে ঢাকায় তাকে দাফন করা হবে বলে স্বজনরা জানিয়েছেন।

Facebook Comments

Check Also

রিলিজ হলো শিল্পী মাসুদ রানার “কেমন আছো মা” মিউজিক ভিডিও

সাইদ হোসেন অপু চৌধুরী : তরুণ প্রজন্মের সংগীত শিল্পী, ও নির্মাতা মাসুদ রানার কথা, সুর …

vv