ব্রেকিং নিউজঃ
Home / প্রিয় চাঁদপুর / প্রিয় কচুয়া / কচুয়ায় পূর্বশত্রুতার জেরে বসতবাড়িতে হামলা-ভাংচুর : নারীসহ আহত ১০

কচুয়ায় পূর্বশত্রুতার জেরে বসতবাড়িতে হামলা-ভাংচুর : নারীসহ আহত ১০

স্টাফ রিপোর্টার : পূর্ব শত্রুতার জেরে চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার দারচর গ্রামের সিরাজুল ইসলামের বসত বাড়িতে (বেপারী বাড়ি) হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট ও সিরাজুল ইসলামের পরিবারের সদস্যদের কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষ। এতে করে নারীসহ ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদেরকে উদ্ধার করে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায় স্থানীয় জনগন।

গত ২৬ মে মঙ্গলবার রাতে এ হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এঘটনায় কচুয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী পরিবার।

ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানাগেছে, দারচর গ্রামের শিব্বির, আল-আমিন, লিটন, আশেক, হাসান, মানিক, মনির, রিয়াজ, মাছনুন এবং কবির দলবল নিয়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সিরাজুল ইসলামের চার ছেলে মাওলানা আনোয়ারুল্লাহ, খোরশেদ আলম, আলমগীর হোসেন এবং হালিমের বসতঘরে কুপিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে।

এ সময় তাদের বাঁধা দিলে সিরাজুল ইসলাম, আফিয়া বেগম, মাওলানা আনোয়ারুল্লাহ, খোরশেদ আলম, নাছরিন আক্তার, রিফিন, রিমি, আফসানা, শাহিনুর বেগম এবং শিল্পি বেগমকে লাঠি সোঠা দিয়ে আঘাত করে এবং দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। আহতদেরকে উদ্ধার করে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায় স্থানীয় জনগন।

এসময় শিল্পি বেগমের অবস্থার অবনতি দেখা দিলে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য রেফার করেন। বর্তমানে শিল্পি বেগম ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এব্যাপারে ভুক্তভোগী পরিবারের আনোয়ারুল্লাহ জানান, পূর্বশত্রুতার জের ধরে তারা আমাদের বাড়িতে হামলা, লুটপাট, ভাংচুর ও মারধর এবং জখম করে। আমার বসতঘর থেকে আলমারিতে থাকা নগদ ৯০ হাজার টাকা এবং ২টি মোবাইল ফোন নিয়ে যায়।

খোরশেদ আলম জানান, তারা আমার দুই মেয়েকে টেনে হিছড়ে বারবার শ্লিলতাহানির চেষ্টা করে এক পর্যায়ে আমার দুই মেয়ে অজ্ঞান হয়ে যায়। বিবাদীরা আমার ঘরে থাকা মালামাল ভাংচুরসহ নগদ দেড় লক্ষ টাকা লুটপাট করে নিয়ে যায়।

হালিম জানায় বিবাদীরা তার ঘরে থাকা মালামাল ভেংগে ৮০ হাজার টাকাসহ মালামাল লুট করে। এবং এতে বাধা দিয়ে অনান্য সদস্যদের আঘাত করে।

আলমগীর জানায় বিবাদীরা তার ঘরে ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে ঘরে থাকা ১লক্ষ ৪০ হাজার টাকা লুট করে। এবং তার স্ত্রী শিল্পী বেগমকে কুপিয়ে জখম করলে তিনি বর্তমানে হাসপাতালের আইসিউতে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রতিপক্ষ শিব্বির আহমেদ জানান, ঘটনার দিন বিকেল বেলা মাগরিবের আগে তারা আমার দোকানে একজনকে খোঁজ করে আমাকে বলে তাকে দোকান থেকে বের করে দিতে এতে আমি বাধা প্রয়োগ করলে তারা আমাকে বেধরক মারধর করে। এঘটনায় আমি কচুয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি।

এ ব্যাপারে কচুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ওয়ালী উল্লাহ জানান, এ ঘটনায় উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে।তদন্তকারী অফিসার তদন্ত করছে। তদন্ত শেষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Facebook Comments

Check Also

কচুয়ার বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী নূরুল আজাদের মৃত্যু বার্ষিকী আজ

মো. রাছেল : কচুয়া উপজেলার ঐতিহ্যবাহী নূরুল আজাদ কলেজ, মনপুরা-বাতাবাড়িয়া জাফর আলী মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয় …

vv