ব্রেকিং নিউজঃ
Home / শীর্ষ / কচুয়ায় পুকুরে দূর্বৃত্তের বিষ প্রয়োগে প্রায় ৮ লাখ টাকার মাছ নিধন
ঋণ নিয়ে চাষ করা লাখ টাকার মাছ মরে ভেসে উঠল কার্তিক রায়ের মৎস্য প্রজেক্টটের।

কচুয়ায় পুকুরে দূর্বৃত্তের বিষ প্রয়োগে প্রায় ৮ লাখ টাকার মাছ নিধন

মো: রাছেল, কচুয়া : চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার আশরাফপুর ইউনিয়নের চাঙ্গিনী গ্রামে দুস্কৃতিকারীরা পুকুরে বিষ দিলে প্রায় ৮ লাখ টাকার মাছ মরে ভেসে উঠেছে।

গত শনিবার সকালে জেলা স্বেচ্ছাসেবক সেবক লীগের সদস্য ভুক্তভোগী কার্তিক রায়ের ৪০ শতাংশের পুকুরে এ ঘঠনা ঘটে। কার্তিক রায় এ বিষয়ে শনিবার সন্ধ্যায় কচুয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন।
ভুক্তভোগী কার্তিক রায় জানান, শনিবার সকালে আমার পুকুর পাড়ে এসে দেখি পুরো পুকুর জুড়ে মাছ মরে ভেসে উঠেছে। অনেক টাকা ঋণ নিয়ে এ মৎস্য প্রজেক্টটি দাঁড় করেছি। প্রায় ৮ লাখ টাকার ক্ষতি হয়ে গেল আমার। এ কথা বলে বাকরুদ্ধ হয়ে গেলেন তিনি।

এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে ও বিচার দাবি করে ফেসবুকে ফেইজে পোস্ট করেছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সাবেক সদস্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও জয়বাংলা স্কোয়াডের প্রধান সমন্বয়ক ফয়েজ উল্লাহ মানিক।

“কার্তিকের খামারের মৎস্য প্রজেক্টটে মরে যাওয়া মাছের ছবি শেয়ার করে তিনি পোষ্ট করেন” মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তরুণ প্রজন্মের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন বেকার না থেকে প্রয়োজনে মাছচাষ-সহ কৃষি ভিত্তিক অন্যান্য খামার কিংবা ক্ষুদ্র পরিসরে হলেও অন্যান্য ক্ষেত্রে উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ শুরু করতে। কিন্তু এরকম (কার্তিক রায়ের সাথে ঘটে যাওয়া ঘটনা) প্রায়ই আমরা দেখি। প্রচন্ড কষ্ট হয় এগুলো দেখলে এবং নিজের উপরই ঘৃণা জন্মে।

মানিকের নিজ এলাকায় ঘটা এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি লেখেন, ছাত্রলীগ নেতা কার্তিক রায় ধার-দেনা আর পরিবার থেকে মিলিয়ে এই প্রজেক্ট করেছিল। আর কিছুদিনের মধ্যেই মাছগুলো বিক্রির সাইজে আসত। এসবের শেষ অবশ্যই বঙ্গবন্ধু আর শেখ হাসিনার বাংলায় হবে। ফয়েজ উল্লাহ মানিকের ওই ফেসবুক পোস্টে মন্তব্য করে ক্ষোভ জানিয়েছেন অনেকে।
ফয়সাল সিকদার নামে একজন মন্তব্য করেছেন, ভালো করে তদন্ত করতে হবে যে, এই অমানুষগুলো কারা, যারা এই কাজ করছে? তারা কার্তিক এবং তার পরিবারের উপর যে কোন সময় আরো বড় ঘটনার জন্ম দিতে পারে।

দুর্বৃত্তদের শাস্তি দাবি করে রুবেল আল-মামুন নামে একজন লিখেছেন, কঠোর শাস্তি দাবি করছি। এরা শুধু একটা পরিবারকে পথে নামায় না, একটা দেশের সম্ভাবনা নষ্ট করে।
এক মন্তব্যে কার্তিকের বিপদে পাশে থাকার জন্য একটি ফান্ড গঠনের আহবান জানিয়ে কচুয়া উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি শরিফুল ইসলাম সরকার লিখেছেন, বিষয়টা খুব দুঃখজনক। বিষয়টা তদন্ত করে দেখা হোক। আসুন আমরা সবাই মিলে ছোট একটা ফান্ড তৈরি করে কার্তিক এর পাশে দাঁড়াই।

কচুয়া থানার ওসি মো: মহিউদ্দিন বলেন,অভিযোগ পেয়েছি, কে বা কাহারা পুকুরে বিষ দিয়েছে তাদের সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে, তাদের খুঁজে বের করে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনআনুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Facebook Comments

Check Also

শাহরাস্তিতে মানিক সমর্থকদের হামলায় জামাল সমর্থকের ২ জন আহত

নিজস্ব প্রতিনিধি : আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে শাহরাস্তি উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী …

Shares
vv