ব্রেকিং নিউজঃ
Home / প্রিয় চাঁদপুর / প্রিয় কচুয়া / কচুয়ার গোহাট দক্ষিণে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী জাহাঙ্গীর আলম

কচুয়ার গোহাট দক্ষিণে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী জাহাঙ্গীর আলম

নোমান হোসেন আখন্দ : কচুয়া উপজেলার ১১ নং গোহাট দক্ষিণ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বার বার নির্বাচিত সাবেক সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক সাবেক তুখোড় ছাত্রনেতা উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যকরী কমিটির ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো: জাহাঙ্গীর আলম নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশা করছেন।

মো: জাহাঙ্গীর আলম ১৯৬০ সালের ১৬ই জুন কচুয়া উপজেলার ১১ নং গোহ্টা দক্ষিণ ইউপির সাহারপাড় কাজী বাড়ীতে জন্মগ্রহন করেন। তার পিতার নাম মৃত: আবদুল জব্বার । তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আর্দশের সৈনিক জাহাঙ্গীর আলম ছাত্রজীবনে পুর্ব পাকিস্থান ছাত্রলীগের বিভিন্ন পদে অধিষ্ঠিত হয়ে সক্রিয় ভাবে দায়িত্ব পালন করেন।

১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে ছাত্র হিসেবে জনমত তৈরী ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিভিন্ন ভাবে সহায়তা প্রদান করেন । মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে বিজয় লাভের পর বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কচুয়া উপজেলা ও ইউনিয়ন যুবলীগের বিভিন্ন পদে অধিষ্ঠিত হয়ে সক্রিয় ভাবে দায়িত্বপালন। ১৯৮৫ সাল থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত পরপর ২ বার ১১ নং গোহাট দক্ষিণ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বপালন। ১৯৯৯ সাল থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত গোহাট দক্ষিণ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে সফল ভাবে দায়িত্বপালন। ২০০৪ সাল থেকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কচুয়া উপজেলার ত্রাণ ও সমাজকল্যান সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বপালন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নীতি ও আদর্শ থেকে কখন ও বিচ্যুাতি হননি আওয়ামীলীগের এ কর্মী।

এ বিষয়ে ১১ নং দক্ষিণ গোহাট ইউনিয়নের লোকজন জানান, জাহাঙ্গীর আলম ছাত্রজীবন থেকেই আওয়ামী রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত । যিনি দায়িত্বকালীন সময়ে কখনো কারো সাথে বিরোধে জড়াননি। এলাকায় সদালাপি সজ্জন ও সাদামনের পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক নেতা হিসেবে তার পরিচিতি রয়েছে। এ জনপ্রিয় ও পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক ব্যাক্তি নৌকা প্রতীক পেলে জনগনের আশা আকাঙ্খার প্রতিফলন ও নৌকা প্রতিকের বিজয় ঘরে তোলা সহজ হবে।

এ বিষয়ে নৌকা মনোনয়ন প্রত্যাশী মো: জাহাঙ্গীর আলম জানান, দীর্ঘ ৫০ বৎসর যাবৎ বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারন করেই রাজনীতি করেছি। লোভ-লালসার উর্দ্ধে উঠে জনগনের কল্যাণে ও সংগঠনকে গতিশীল করতে দৃঢ়ভাবে কাজ করেছি। দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে দল থেকে কিছুই চাইনি, জীবনের শেষপ্রান্তে এসে বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমার একমাত্র চাওয়া- পাওয়া বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামীলীগের আদর্শের প্রতীক নৌকা উপহার দিয়ে আমাকে কৃতার্থ করবেন।

Facebook Comments

Check Also

হাজীগঞ্জে আগুনে পুড়ে ৩ প্রতিষ্ঠানের প্রায় ২ কোটি টাকা ক্ষতি, অভিযোগের তীর ফায়ার সার্ভিস

সাইফুল ইসলাম সিফাত : হাজীগঞ্জ বাজারে অগ্নিকান্ডে ৩টি প্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। রবিবার ভোর …

Shares
vv