ব্রেকিং নিউজঃ
Home / টকশো / কচুয়া পৌরসভাকে একটি দারিদ্র্যমুক্ত পৌরসভা গড়ে তুলব  : মেয়র প্রার্থী জামাল

কচুয়া পৌরসভাকে একটি দারিদ্র্যমুক্ত পৌরসভা গড়ে তুলব  : মেয়র প্রার্থী জামাল

নিজন্ব প্রতিনিধি : আসন্ন কচুয়া পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী, অন্যায়ের প্রতিবাদকারী, সৎ নির্বিক, কচুয়া পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কোয়া চাঁদপুর ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা সভাপতি মো.জামাল হোসেন রাজু পৌরবাসী সহ সর্বস্তরের মানুষের কাছে দোয়া ও আশির্বাদ কামনা করেছেন। তিনি কচুয়া পৌরসভাকে একটি দারিদ্র্যমুক্ত ও আধুনিক পৌরসভা হিসেবে কাজ করতে আগ্রহী প্রকাশ করেছেন মোঃ জামাল হোসেন।

জানা গেছে, পৌরসভার থেকে মেয়র পদে তিনিই একমাত্র প্রার্থী হবার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন তিনি। এছাড়াও মেয়র পদে নির্বাচন করতে প্রার্থীর যে ধরণের আর্থিক স্বচ্ছলতা, সামাজিক পরিচিতি,রাজনৈতিক অবস্থান, পারিবারিক ঐতিহ্য ইত্যাদি প্রয়োজন তার সব কিছুই বিদ্যমান রয়েছে।

পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি ইমেজ, আর্দশিক, সৎ ও নিবেদিতপ্রাণ হিসেবে পৌরবাসীর মধ্যে তার পরিবারের একটা আলাদা গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। এসব বিবেচনায় সবাই জামাল হোসেনকে শক্ত প্রার্থী হিসেবে বিবেচনা করছে। মেয়র পদে জামাল হোসেন প্রার্থী হলে তার বিজয় প্রায় নিশ্চিত বলে মনে করছেন পৌরবাসী। এদিকে মেয়র পদে জামাল প্রার্থী হবার খবরে অনেকের রাঁতের ঘুম হারাম হয়েছে তাকে সবাই শক্ত প্রার্থী বিবেচনা করছে। পৌরসভার পশ্চিম অঞ্চলের একজন অত্যন্ত সৎ ও তার বিনয়ী ব্যবহারের কারণে জনপ্রিয়তায় অন্যদের থেকে তাকে অনেক এগিয়ে রেখেছেন।

পৌরবাসীরা জানান, সাধারন মানুষের প্রত্যাশা পূরনে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছেন জামাল হোসেন । তার পরিশ্রম, সাহস, ইচ্ছা শক্তি, একাগ্রতা, আর প্রতিভার সমন্বয়ে সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য, চাঁদপুর-১ কচুয়া আসনের সংসদ সদস্য সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড.মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি এর সাথে একযোগে উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড সঠিক ও সুচারু ভাবে বাস্তবায়নের জন্য সর্বপরি বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের যে স্বপ্ন রয়েছে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন ।

সকলের সহযোগিতা পাচ্ছেন তিনি এবং সহযোগিতার আসা ব্যক্ত করে চলছেন। পৌর আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রনেতা মোঃ জামাল হোসেন তিনি পৌরসভা সহ কচুয়া উপজেলার সর্বত্র সম্মানিত হচ্ছেন। তারুণ্যের প্রতীক ব্যাক্তি তার বয়স ও অভিজ্ঞতা দুটিকেই হার মানিয়েছে। তার কর্মকান্ডে মনে হয় তিনি অনেক নবীন। তার অভিজ্ঞতা রয়েছে অনেক। পৌর আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক পদে সক্রিয় ত্যাগী নেতা ও তরুণ হিসাবে আসন্ন কচুয়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগরে সম্ভাব্য নৌকা পদপ্রার্থী পৌরসভার মেয়র পদে তাকে দেখতে চায়।

তিনি বর্তমান মহামারি করোনা ভাইরাস সাড়াবিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে তবুও তিনি থেমে থাকেনি। সাহায্যের হাত বাড়িতে দিয়েছে ঘড় বন্ধি সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষের পাশে। তিনি দল মত নির্বিশেষে করোনা নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করার লক্ষে দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালিয়ে গেছেন। নিজের চিন্তা না করে চিন্তা করেছিলেন কচুয়া পৌরবাসীর জন্য। দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে তিনি সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মতবিনিময় সভাও করেছেন সেই সাথে খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন।

তিনি পৌর আওয়ামীলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই উল্যেখ যোগ্য উন্নয়নের অগ্রণী ভূমিকা রেখে সাধারণ মানুষের আস্থা অর্জনে সক্ষম হয়েছেন। পৌরবাসীর সাধারণ মানুষের উন্নয়নে তার নিরন্তর প্রয়াস। সব মহলে প্রশংসা কুড়িয়েছেন। তিনি পৌরসভার আলোকিত মুখ হিসেবে পরিচিত বর্তমান পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। এই মানুষটি নিজের সাফল্যের কারণে বিভিন্ন সংগঠন কর্তৃক নানা ভাবে প্রশংসিত হয়েছেন। সামাজ সেবক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। ব্যাক্তি জীবনে তিনি অত্যান্ত নম্র, ভদ্র, সদা হাস্যোজ্বল ও সাদা মনের মানুষ। তার মাঝে কোন প্রকার অহংকার নেই।

নিরঅহংকারী এই মানুষটি দল মত নির্বিশেষে আজ সকলের কাছে প্রিয় ব্যাক্তি। কাজ করে যাচ্ছেন দলের জন্য এবং খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষের জন্য এবং কাজ করেছেন নৌকার জন্য ও সর্বপরি সাধারণ মানুষের কল্যানের জন্য। তিনি কচুয়া পৌসবাসীর কাছে একজন সাদা মনের উধার মানসিকতার ও দানশীল মানুষ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছেন। তিনি বর্তমানে কোয়া চাঁদপুর নব ধারা শিশু নিকেতন সভাপতি, কোয়া চাঁদপুর বড় বাড়ি জামে মসজিদের সহ-সভাপতিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন পদে দায়িত্ব আছেন।

Facebook Comments

Check Also

হাজীগঞ্জে নৌকা-ধানের শীষের সমানতালে প্রচারণা, ভাগ্য নির্ধারণ ৩০ জানুয়ারী

সাইফুল ইসলাম সিফাত : হাজীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্ধের নৌকা-ধানের শীষের সমানতালে চলছে …

Shares
vv