ব্রেকিং নিউজঃ
Home / টকশো / এলাকার সর্বস্তরের জনগণের অনুরোধে আমি প্রার্থী হয়েছি : হাছিনা গাজী

এলাকার সর্বস্তরের জনগণের অনুরোধে আমি প্রার্থী হয়েছি : হাছিনা গাজী

নিজস্ব প্রতিবেদক : আসন্ন চাঁদপুুর পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত নারী আসনের ১,২,৩ নং ওয়ার্ডের সম্ভাব্য মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী ও ২নং ওয়ার্ড মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদিকা হাছিনা গাজী বলেছেন, আমার এলাকার সর্বস্তরের জনগণের অনুরোধে আমি আসন্ন চাঁদপুর পৌর সভার নির্বাচনে সংরক্ষিত নারী আসনে মহিলা কাউন্সিলর পদে প্রার্থী হয়েছি।

এলাকাবাসীর অনুরোধের কারণ হচ্ছে পৌর সভার এ সংরক্ষিত আসনের জনগণ বিগত নির্বাচনগুলোতে যাকে এ সংরক্ষিত আসনে বিজয়ী করে বার বার তাদের প্রতিনিধি হিসেবে পৌর পরিষদে পাঠাচ্ছেন তাকে কোনো বিপদ আপদে তারা কাছে পায়নি। তিনি যে এলাকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন তাদের ছেড়ে অন্য এলাকায় গিয়ে বসবাস করেন। শুধু তাই নয়, কোনো ঈদ বা উৎসবেও তিনি এলাকায় এসে গরীব দুঃখীদের খোঁজ খবর নেয়নি।

তিনি এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমি ছোট বেলা থেকে অপরকে সহযোগিতা করার মন মানসিকতা নিয়ে বেড়ে উঠেছি।   সবসময় পরোউপকারী হিসাবে কাজ করে আজো মানুষের কল্যাণে কাজ করার চেষ্টা করছি।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের একজন কর্মী হিসেবে রাজনীতি শুরু করে আজো এদলের তৃনমুল পর্যায়ের কমী। যেদিন থেকে রাজনীতি করছি, সেদিন থেকেই অন্তত এটুকু বুজি, যে  রাজনীতি মানে জনসেবা। তাছাড়া  বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কর্মী এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের রাজনীতি জীবনে মানুষের কল্যাণে আমার সাধ্য অনুযায়ী চেষ্টা করে যাচ্ছি।

তাছাড়া এই দলের রাজনীতি করার কারনে বিএনপি জোট সরকার আমলে আমার বাবা-মায়ের বাসস্থান ভাই-বোন সকলের বাড়িঘরে হামলা লুটপাট করা হয়েছে। আমার পরিবারের সকলের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আমরা রাস্তায় রাস্তায় ফেরারী হয়ে ঘুরেছি। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক দুজনেই এবিষয়ে অবগত আছেন। চাঁদপুরের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা সকলেরই এই বিষয়টি জানে। কিন্তু এ দল রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আছে আজও দলের কোনো সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ করিনি। একজন কর্মী হিসেবে আছি, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের একজন কর্মী হিসেবে আমৃত্যু এদলের রাজনীতি করে যাবো।

কুশল বিনিময় সহ প্রচারনায় ব্যাস্ত সময় পার করছেন জনপ্রিয় নেত্রী হাসিনা বেগম।
আমার সবিনয় অনুরোধ জেলার শীর্ষ নেতাদের কাছে, বিগত দিনে আমার ও পরিবারের সদস্যদের এ দলের প্রতি যে শ্রম ও ত্যাগ এবং অবদান রয়েছে এ সকল কিছু বিবেচনায় নিয়ে আমাকে আসন্ন চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে সংরক্ষিত নারী আসন ১,২ ও ৩ নং ওয়ার্ডে মহিলা কাউন্সিলর পদে দলের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিবেন এই প্রত্যাশা করছি। যেহেতু আমি বঙ্গবন্ধুর আদশের রাজনীতি করছি এবং আওয়ামীলীগের তৃণমুলের কর্মী অতএব দলের যেকোনো সিদ্ধান্ত আমি মেনে নেবো।

তিনি এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, ইতিমধ্যে মাঠে প্রতিটি ভোটারের ঘরে ঘরে গিয়ে তাদের সাথে কুশল ও শুভেচ্ছা বিনিময় করে আসছি। পাশাপাশি আমার ওয়ার্ডের জনগণ এবং দলীয় নেতা কর্মী ও জনগনের দ্বারে দ্বারে আমার পক্ষে প্রতিনিয়ত প্রচার প্রচারনা অব্যাহত রয়েছে।

পরিশেষে আমার ওয়ার্ড বাসীর প্রতি আহবান থাকবে, আপনাদের প্রিয় নেত্রী হাসিনা গাজী আপনাদের পাশে আছে এবং থাকবে আপনাদের সকলের দোয়া ও সমর্থন কামনা করছি।

Facebook Comments

Check Also

মসজিদ-মাদ্রাসার হুজুরের বেতন কতো?

গভীরতা নিয়ে ভাববার বিষয়: মাদ্রাসার হুজুরের বেতন কতো? ভেবেছেন কখনো? ভাববার কি সময় নেই? ভাবা …

vv