ব্রেকিং নিউজঃ
Home / বিশেষ প্রতিবেদন / অসহায় নিপীড়িত মানুষের পাশে ছিলেন চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মানিক

অসহায় নিপীড়িত মানুষের পাশে ছিলেন চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মানিক

সজীব খান : গত ৫ বছরে তাঁর জনকল্যাণ ও সামাজিক এসব কর্মকাণ্ডে একদিকে যেমন ইউনিয়নবাসীর নিকট হয়েছেন ব‍্যাপক জনপ্রিয় চেয়ারম্যান। অন‍্যদিকে জেলার প্রশাসনসহ দেশের অন্যান্য দপ্তরগুলো থেকেও কুড়িয়েছেন তিনি প্রশংসা। সব মিলিয়ে বাগিয়ে নিয়েছেন তিনি জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যানের পদের সম্মানটুকু ।

চাঁদপুর সদর উপজেলার মৈশাদী ইউপি চেয়ারম্যান, মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিক গত নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে ইউনিয়নের সর্বস্তরের জনগণের জন্য নিবেদিত ভাবে কাজ করে ব‍্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন। অসহায় নিপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন, সেবা করেছেন, ইভটিজিং, মাদক, সন্ত্রাস, বাল্যবিয়ে রোধ করার জন্য সার্বক্ষণিক কাজ করেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রতিনিধিদল, বিভাগীয় কমিশনার গন এ ইউনিয়নের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিদর্শন করে এবং সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার, লাইব্রেরি, জন্মনিবন্ধন, মৃত্যু সার্টিফিকেট, ওয়ারিশিয়ান সনদপত্র, বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, বিধবা ভাতা, ভিজিএফ কার্ড,ভিজিডি কার্ডসহ সার্বিক কার্যক্রমে এলাকাবাসী ও দারুন সন্তুষ্ট।

জেলার শ্রেষ্ঠ এ চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মানিক এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, গত ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে এ ৫ বছর ইউনিয়ন ও জনকল্যাণে নিবেদিত ভাবে কাজ করে যাচ্ছি। সরকারি কার্যক্রম ও দান অনুদান এর পাশাপাশি আমার ব্যক্তিগত তহবিল হইতে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে কাজ করার চেষ্টা করেছি। আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে প্রথমেই ইউনিয়নের শিক্ষা-কার্যক্রমে নজর দেই।

২০১৭ সালের প্রথমে ইউনিয়নের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র ছাত্রীদের মাঝে ২ হাজার টিফিন বক্স বিতরণ করি।

এছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানগনদের জন্য ১৫ টি ভালো মানের চেয়ার এর ব্যবস্থা করি। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মাদ্রাসা ও এতিমখানায় নিজ অর্থায়নে ৬০ টির বেশি সিলিং ফ্যান এর ব‍্যাবস্থা করি।

ইউনিয়নের মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে ল্যাপটপ ও ডেক্সটপ কম্পিউটার প্রদান করি। কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে সম্মাননা ক্রেস্ট ও নগদ অর্থ সহায়তা করি। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে জ্যামিতি বক্স, স্কেল, রাবার, কলম, পেন্সিল, ফাইলসহ বিভিন্ন শিক্ষা উপকরন তুলে দেই।

এছাড়া মেধাবী শিক্ষার্থীদেরক মাঝে ছাতা বিতরন করি। ঝরে পড়া শিক্ষার্থী রোধ করতে ভর্তি ফি,ফরম ফিলাপ ফি, বই, খাতা, কলম, ইউনিফর্ম এর ব্যবস্থা করি । মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের লেখাপড়ার দায়িত্ব গ্রহণ করি ।

এছাড়া বীরপ্রতীক মমিনউল্যাহ পাটোয়ারী একাডেমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য আমি ৪৮ শতক জমি দান করি। পাশাপাশি দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থী পরিবারদের বাড়ি নির্নামানের জন্য আমার ব‍্যাক্তি পক্ষ থেকে ২৪ শতক জমি ক্রয় করি।

সব মিলিয়ে আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর ইউনিয়নবাসীর জীবন-মান ও ভাগ‍্যের উন্নয়নে সর্বাত্বকভাবে কাজ করে আসছি।

উল্লেখ্য চাঁদপুর সদর উপজেলার মৈশাদী ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিক। যাবতীয় কার্যক্রম মুল‍্যায়নে তিনি হয়েছেন জেলার শ্রেষ্ঠ চেয়ারম্যান।

আসন্ন সদর উপজেলা মৈশাদী ইউপি নির্বাচনে এবারও সম্ভাব‍্য চেয়ারম্যান প্রার্থী মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মানিক।

Facebook Comments

Check Also

ব্যক্তিকে নয়, শেখ হাসিনার নৌকাকে আবারো বিজয়ী করুন : চেয়ারম্যান প্রার্থী আল মামুন পাটওয়ারী

স্টাফ রিপোর্টার : আসন্ন চাঁদপুর সদর উপজেলার ৫নং রামপুর ইউপি নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় …

Shares
vv